করোনার ওষুধ আবিষ্কার করল বাংলাদেশ, চারদিনেই সুস্থ হয়ে উঠলেন ৬০ জন আক্রান্ত

0

ঢাকা: আবিষ্কার হয়ে গিয়েছে করোনার ওষুধ। শুনতে অবাক লাগছে? অবাক হওয়ারই কথা। যে মারণ ভাইরাসকে প্রতিহত করার জন্য সমগ্র বিশ্বের বিজ্ঞানী-চিকিৎসকেরা নাওয়া খাওয়া ভুলে প্রতিষেধক এবং ওষুধ আবিষ্কারের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন, সেই গবেষণায় সফল হলে সমগ্র বিশ্বের লক্ষ লক্ষ প্রাণ বাঁচানো সম্ভব হবে। আর সেই কাজই করে দেখিয়েছে বাংলাদেশ।

সংবাদসংস্থার খবর অনুযায়ী, করোনার ওষুধ আবিষ্কার করে ফেলেছে বাংলাদেশের এক মেডিক্যাল টিম। বাংলাদেশ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের এক চিকিৎসক ডঃ মহম্মদ তারেক আলম জানিয়েছেন যে কিছু কিছু ওষুধের কম্বিনেশান বানিয়ে ৬০ জন করোনা আক্রান্তকে দেওয়া হয় এবং তাঁরা সুস্থও হয়ে গিয়েছেন। ডঃ আলম বলেন, “রোগীদের আইভারমেক্টিন এবং ডক্সিসাইক্লিন নামক ওষুধ দেওয়া হয়েছে। ডক্সিসাইক্লিন মূলত অ্যান্টিবায়োটিক। অন্যদিকে আইভারমেক্টিন হল অ্যান্টিপ্রাজোল। এই দুটি ওষুধ খাওয়ার পর করোনার হাত থেকে মুক্তি পেয়েছেন ৬০ জন করোনা-আক্রান্ত”।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশে এখনও পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় ২২ হাজার, মৃত্যু হয়েছে ৩২০-এর বেশি। বাংলাদেশ মেডিক্যাল কলেজের মেডিসিন বিভাগের প্রধান ডঃ আলম জানিয়েছেন, ওষুধ খাওয়ার ৪ দিনের মধ্যেই রোগীরা মধ্যেই সুস্থ হয়ে গিয়েছেন। সেইসঙ্গে ওষুধের কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও নজরে পড়েনি। এই ওষুধের কম্বিনেশানের উপর ১০০ শতাংশ ভরসা রাখছেন বাংলাদেশের ওই মেডিক্যাল টিম। এমনকি আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে ওষুধটি পাঠানোর জন্য সরকারি আধিকারিকদের সঙ্গেও কথা বলা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

ইতিমধ্যেই করোনা ভাইরাসের টীকা বানানোর প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে ইতালি, ইজরায়েল, ব্রিটেন, আমেরিকা, চিনের মত বেশ কয়েকটি দেশ। করোনার সম্ভাব্য প্রতিষেধক হিসেবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তালিকায় ১১০ টি নাম অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। তবে বাংলাদেশের আবিষ্কৃত এই ওষুধ বিশ্বের কাছে কতটা গ্রহণযোগ্য হবে এখন সেটাই দেখার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here