সুভাষ চন্দ্র বসুর সম্মানে কলকাতা পুলিশে তৈরি হবে ‘নেতাজি ব্যাটেলিয়ান’, বরাদ্দ ১০০ কোটি

0

কলকাতা: শুক্রবার বিধানসভায় ভোট অন অ্যাকাউন্ট পেশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বঙ্গ রাজনীতির আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে এখন ২১ এর বিধানসভা নির্বাচন। রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনের আগে উন্নয়নের বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। বৃহস্পতিবারই বিকেল চারটে নাগাদ এই বাজেট বা ভোট অন অ্যাকাউন্ট পেশ করেন তিনি। এদিন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “বিনামূল্যে ২০২১ সালের জুন পর্যন্ত খাদ্যসামগ্রী দেওয়া হচ্ছে। এই প্রকল্প তার পরেও চালু থাকবে। রান্না করা খাবার পরিবেশনের নতুন প্রকল্প করা হবে। এর জন্য ১০০ কোটি টাকা ব্যয়বরাদ্দ করা হচ্ছে।” বাজেটে মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, কলকাতা পুলিশে নতুন নেতাজি ব্যাটেলিয়ান তৈরি হবে।

মমতা বলেন, নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর সম্মানে আজাদ হিন্দ স্মারক নির্মাণ করছি। নিউটাউনে হবে এই স্মারক। এর জন্য ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। প্রতিটি জেলায় জয় হিন্দ ভবন নির্মাণ হবে। কলকাতা পুলিশে নতুন নেতাজি ব্যাটেলিয়ান। এর জন্য ১০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। এছাড়াও আজকের বাজেটে ছিল-

১। কোভিডের জন্য অসংগঠিত ক্ষেত্র বিরাট ক্ষতি হয়েছে। ৪৫ হাজার শ্রমিককে ১০০০ টাকা করে আর্থিক সাহায্য দেওয়া হবে।

২। চা-বাগানের উন্নতিতে ১৫০ কোটি টাকা।

৩। ১০ লক্ষ নতুন স্বনির্ভর গোষ্ঠী গঠন করা হবে।

৪। রাজ্যে বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিপুল বিনিয়োগ৷ চর্ম, হস্ত, উৎপাদন শিল্পে বিনিয়োগ এসেছে।

৫। তফশিলিদের জন্য ২০ লক্ষ গৃহনির্মাণ।

৬। কৃষকবন্ধু প্রকল্পে একর পিছু অনুদান আগামি খারিফ মরসুমের জন্য় ৫০০০ থেকে বাড়িয়ে ৬০০০ টাকা করার প্রস্তাব দেওয়া হচ্ছে।

৭। অলচিকি ভাষার জন্য ১৫০০ স্কুল তৈরির প্রস্তাব দিচ্ছি। এর জন্য ১০০ কোটি টাকা ব্যয়বরাদ্দ করে রাখছি।

৮। ‘যুবশক্তি’ নামে নতুন প্রকল্পে যুবকদের ইন্টার্ন হিসেবে নেওয়া হবে। ইন্টার্নশিপ শেষ হলে চাকরি দেওয়া হবে।

৯। দেড় হাজার পার্শ্ব-শিক্ষক নিয়োগ হয়েছে।

১০। মাতৃবন্দনা নামে নতুন প্রকল্পের সূচনা। আগামী অর্থবর্ষে ৮৫০ কোটি টাকা ব্যয় বরাদ্দের প্রস্তাব।

১১। স্বাস্থ্যসাথী কার্ড প্রতি তিনবছর অন্তর নবীকরণ হবে।

১২। সেচের জন্য ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হল।

১৩। তফশিলি জাতি, উপজাতি ও আদিবাসীদের জন্য ১০০টি ইংরেজি মাধ্যম স্কুল তৈরি করা হবে। এর জন্য় ৫০ কোটি টাকা ব্যয়বরাদ্দ রাখছি।