উপেক্ষিত উদ্বাস্তু মানুষের সংখ্যা প্রায় ত্রিশ হাজার

কলকাতা: এই সমস্যার সমাধান পাওয়া যায়নি। আর তাই এদিকে চোখ ফেরানো হয় না। একদিকে যখন নাগরিকত্ব আইন নিয়ে দেশীয় রাজনীতি তোলপাড়, নজর ঘোরাচ্ছে বিশ্ব। রাজনৈতিক কারণে ঘর ছাড়া, জমি হারা মানুষ নিয়ে বিভাজিত হচ্ছে রাজনীতি। ঠিক তখনি নিয়তির চাকায় নিয়মিত হাজার হাজার মানুষ ঘর ছাড়া, জমি হারা হয়ে এই দেশের মাটিতে দাড়িয়েই রোজকার বেঁচে থাকার সংগ্রাম করে চলেছেন ।

কেদার মন্ডল (৮২), গোটা জীবনে প্রায় পনেরো বার নিজের ঘর হারিয়েছেন… হারিয়েছেন জমি। না কোনো বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়। ফকিরা চৌধুরী (৭৫), শচীন্দ্রনাথ মণ্ডল (৯০), আব্দুল রসিদ মন্ডল (মৃত), যতীন ঘোষ (মৃত), ক্ষুদিরাম মন্ডল (মৃত)… এরকম উদ্বাস্তু মানুষের সংখ্যা প্রায় ত্রিশ হাজার।

মালদহ জেলার পঞ্চানন্দপুর, মুর্শিদাবাদ জেলার ভগবানগোলার আখেরিগঞ্জ… কোথাও গঙ্গার ভাঙন, কোথাও পদ্মার… নদীর ভাঙনে প্রতি বছর ভিটে-মাটি হারিয়ে উদ্বাস্তু হন হাজার হাজার মানুষ। রাজনৈতিক আলোচনায় যারা ব্রাত্য। কোনো সীমানার রাজনীতি বা রাষ্ট্রীয় সমস্যায় তাঁরা জর্জরিত নন। আর পরিবেশ নিয়ে ভাবনার অবকাশ; সীমানার রাজনীতি বা রাষ্ট্রীয় সমস্যা থেকে রেহাই পেলে তবেই না মাথায় কড়া নাড়বে! তাই এই উদ্বাস্তু মানুষদের সমস্যার কারণ নদীর ভাঙন।নদীর ভাঙনগত কারণে উদ্বাস্তু মানুষদেরকে নিয়েই তৈরী হয়েছে পাড় (দ্য রিভার ব্যাঙ্ক)। ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্থ মানুষরাই অভিনয় করেছেন এই ছবিতে, পাশাপাশি রয়েছেন শ্রীলা মজুমদার সহ একাধিক চলচ্চিত্র শিল্পী।

পাড় চলচ্চিত্রের পরিচালক রাজ ব্যানার্জি কলকাতা টাইমস ২৪-কে দেওয়া একান্ত সাক্ষাতকারে জানিয়েছেন, এই চলচ্চিত্রের শ্যুটিং করা হয়েছে বন্যার সময়; খোদ পঞ্চানন্দপুর গ্রামে। বন্যার একবুক জলে দাঁড়িয়ে ছবি তুলতে গিয়ে আটকে পড়েছেন সমস্যায়। চোখের সামনে একের পর এক মানুষকে গৃহহীন হতে দেখেছেন। তাই এই চলচ্চিত্র শুধু নিছক এক বিনোদন নয় বরং সমস্যা কবলিত মানুষদের নিয়ে তৈরী হওয়া এক যন্ত্রনার দলিল।পরিচালক রাজ ব্যানার্জি জানিয়েছেন, পাড় চলচ্চিত্রের বেশ কিছু দৃশ্যে ক্যামেরার ভিউ ফাইন্ডারে চোখ রেখে চিত্রগ্রাহকের দায়িত্ব সামলেছেন বর্ষীয়ান সিনেমাটোগ্রাফার বৈদ্যনাথ বসাক।

আগামী ১৯ ফেব্রুয়ারি কলকাতার গোর্কি সদনে দেখানো হবে এই চলচ্চিত্র। এই উপলক্ষেই কলকাতা টাইমস ২৪-র স্টুডিওতে পাড় ছবির পোস্টারের প্রথম আনুষ্ঠানিক প্রদর্শন হল। পাশাপাশি দেশ বিদেশের নানান জায়গায় এই ছবি দেখানো হয়েছে এবং আগামীতেও প্রদর্শনের আয়োজন চলছে।