বন্যাবিধ্বস্ত আসামকে অর্থ সাহায্য করলেন রাজ্যের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাস্যাডর প্রিয়াঙ্কা

0

গুয়াহাটি : ক্রমেই আসামের বন্যা পরিস্থিতি এক ভয়াবহ আকার নিচ্ছে। প্রতিবেশী রাজ্য অসমে এখন পর্যন্ত বন্যায় মৃত ১০২। রবিবার জলে ডুবে আরও পাঁচ জনের মৃত্যুর খবর মিলেছে। তাই আবারও সচেতন নাগরিক হিসেবে দায়িত্ববোধ এবং মানবিকতার নজির রাখলেন বলিউড অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। বন্যা বিধ্বস্ত আসামের পাশে দাঁড়িয়ে পাঠালেন অর্থসাহায্য। এই কাজে তাঁকে পূর্ণ সমর্থন করেছেন স্বামী নিক জোনাস।

সোমবার টুইট করে নিজের অনুরাগীদের আসামের পাশে থাকার আবেদন জানিয়েছেন তিনি। আসামে পর্যটন বিভাগের অ্যাম্বাসডার ছিলেন বলিউড অভিনেত্রী। সেই হিসেবে দায়িত্বের কথা ভুলে যাননি তিনি। বরং আসামের বন্যার ভয়াবহ ছবি তাঁকে নিজের দায়িত্ববোধ মনে করিয়ে দিয়েছে। টুইট করে প্রিয়াঙ্কা জানিয়েছেন, “গোটা বিশ্ব এখন মহামারীর সঙ্গে লড়ছে। কিন্তু ভারতের রাজ্য আসামকে বন্যার মতো প্রাকৃতিক দুর্যোগের সঙ্গে লড়তে হচ্ছে। বর্ষার প্রবল বৃষ্টিতে প্লাবিত আসাম। ওদের এখন সাহায্য দরকার।” আসামের জন্য যে সব স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন কাজ করছে, তাদের প্রত্যেককে অভিনেত্রী এবং তাঁর স্বামী নিক অর্থ পাঠিয়েছেন বলে টুইটারে জানিয়েছেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া।

সেই সঙ্গে যাতে অন্যরাও নিজেদের ত্রাণ সাহায্য পাঠাতে পারেন, তার জন্য টুইটে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলির নাম, ঠিকানাও উল্লেখ করেছেন তিনি। ব্রহ্মপুত্রর জলের সীমা ক্রমশই বাড়ছে। তেজপুর, গোয়ালপারা, নেমাতিঘাটে বিপদসীমার ওপর দিয়ে বইছে ব্রহ্মপুত্র। মে মাস থেকে ভারী বৃষ্টিতে ধসে ২৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এখনও পর্যন্ত বন্যায় প্রভাবিত রাজ্যের ৩৩ টি জেলার ২৩ টি জেলা। এখনও বন্যায় আটকে আছেন ২৫ লক্ষ মানুষ ২২৬৫ গ্রামে।

এর মধ্যে শুধু গোয়ালপারাতেই ক্ষতিগ্রস্ত ৪.৭০ লক্ষ মানুষ। বরপেতায় ৩.৯৫ লক্ষ মানুষ ও মরিগাঁওয়ে ৩.৩৩ লক্ষ মানুষ বন্যায় আটকে পড়েছেন। এছাড়াও ধুবড়ি, ধানশিড়ি, জিয়া, ভারালি, কোপিলি, বেকি ও কুশিয়ারা নদীও বহু জায়গায় বিপদসীমার ওপর দিয়ে বইছে অতি বর্ষণের ফলে। এই মুহূর্তে অর্থ সাহায্য খুবই প্রয়োজন। কেন্দ্র, রাজ্য সেই সাহায্য করলেও প্রয়োজনের তুলনায় তা যেন খানিকটা কমই। এই অবস্থায় বলিউড অভিনেত্রী এবং তাঁর বিদেশি স্বামীর মানবিক উদ্যোগ অসমবাসীকে অনেকটাই স্বস্তি দিল। তাঁরা রাজ্যের প্রাক্তন পর্যটন দূত তথা সেলিব্রিটিকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here