প্রয়াত কিংবদন্তি গায়ক এস পি বালাসুব্রাহ্মণ্যম, শোকের ছায়া সঙ্গীত জগতে

0

চেন্নাই: প্রয়াত হলেন এস পি বালাসুব্রাহ্মণ্যাম। প্রায় দুই মাস চিকিত্সার মধ্যে থাকার পর চেন্নাইয়ের একটি হাসপাতালে তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর। বালাসুব্রাহ্মণ্যমের পুত্র এস পি চরণ তাঁর মৃত্যুর কথা ঘোষণা করার সঙ্গে সঙ্গেই সোশ্যাল মিডিয়াতে তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা জানান বহু মানুষ।

এইচ ডি দেবে গৌড়, শিব কুমার এবং খুশবু সুন্দর এর মতো রাজনীতিবিদ, হেমা মালিনীর মত পোস্ট শেয়ার করেছেন। বালাসুব্রাহ্মণ্যমের দীর্ঘকালীন সহযোগী রজনীকান্তের কন্যা সৌন্দর্য রজনীকান্ত প্রথম প্রথম শ্রদ্ধা জানিয়ে লেখেন “রিপ এসপিবি স্যার।” “বিধ্বস্ত” লিখেছেন এ আর রহমান, যার জন্য এস পি বালাসুব্রাহ্মণ্যাম বেশ কয়েকটি গান গেয়েছিলেন। উল্লেখ্য এই নামকরা গায়ক ৫ আগস্ট থেকে হাসপাতালে ছিলেন করোনা সংক্রমণ নিয়ে।

ভর্তির এক মাস মরে করোনার রিপোর্ট নেগেটিভ আসলেও ভেন্টিলেটর থেকে সরানো যায়নি। মাঝে শারীরিক অবস্থা ভালো থাকলেও গত কয়েকদিন ধরেই খারাপ হতে শুরু করে। । বৃহস্পতিবার, হাসপাতাল এমজিএম হেলথ কেয়ারের একটি মেডিকেল বুলেটিনে বলা হয়েছিল মিঃ বালাসুব্রাহ্মণ্যমের অবস্থা গত ২৪ ঘন্টায় আরও খারাপ হয়ে গেছে এবং তিনি সর্বোচ্চ ভেন্টিলেটর সাপোর্টে রয়েছেন। শেষ রক্ষা আর হল না। ফেরা হল না বাড়ি।

এসপিবি ছিলেন একাধিক প্রতিভাবান ব্যক্তি। তিনি একাধিক ভাষায় গায়ক, অভিনেতা, সংগীত পরিচালক, ডাবিং শিল্পী এবং চলচ্চিত্র প্রযোজক হিসাবে কাজ করেছিলেন। পাঁচ দশক ব্যাপী তাঁর কেরিয়ারে তিনি বিভিন্ন ভাষায় ৪০ হাজারের এরও বেশি গান রেকর্ড করেছিলেন। দীর্ঘ কেরিয়ারে, তাঁর কণ্ঠের জন্য বেশ কয়েকটি পুরষ্কার এবং প্রশংসাসূচক উক্তি জয় করেছিলেন। আসলে, তিনি সবচেয়ে বেশি সংখ্যক গান রেকর্ড করার জন্য গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড জিতেছিলেন। তিনি ছয়বার সেরা পুরুষ প্লেব্যাক গায়কের জন্য ন্যাশান্যাল অ্যাওয়ার্ড পেয়েছিলেন এবং ২৫ বার তেলুগু সিনেমায় নন্দী পুরষ্কার পেয়েছিলেন।