কলকাতা: কংগ্রেস সাংসদ শশী থারুরের বিরুদ্ধে জারি হল গ্রেফতারি পরোয়ানা। উল্লেখযোগ্য বিষয় হচ্ছে দক্ষীন ভারতের রাজ্য কেরলের এই সাংসদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে কলকাতার ব্যাঙ্কশাল আদালত।

ঘটনার সূত্রপাত এক বছর আগে। একটি জনসভায় বক্তব্য রাখার সময়ে বিজেপি শিবিরকে আক্রমণ করতে গিয়ে বেফাস মন্তব্য করে ফেলেন এই কংগ্রেস নেতা। সেই কারণেই তিরুঅনন্তপুরমের সাংসদের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করেন আইনজীবী সুমিত চৌধুরী।

মঙ্গলবার সেই মামলার পরিপ্রেক্ষিতেই রায় দিয়েছে ব্যাঙ্কশাল কোর্টের বিচারক। গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে কংগ্রেসের টিকিটে জিতে সংসদের নিম্নকক্ষের প্রার্থী হওয়া শশী থারুরের নামে।

২০১৮ সালের জুলাই মাসে নিজের নির্বাচনী ক্ষেত্র তিরুঅনন্তপুরমে একটি জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে শ্রোতাদের বিজেপি সম্পর্কে সাবধান করেছিলেন শশী থারুর। সেই সময়েই বিরোধী বিজেপিকে আক্রমণ করতে গিয়ে তিনি বলেন যে ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি জিতলে ভারত ‘হিন্দু পাকিস্তানে’ পরিণত হয়ে যাবে। একই সঙ্গে তিনি আরও বলেছিলেন যে বিজেপি ফের কেন্দ্রের ক্ষমতা দখল করলে নতুন করে দেশের সংবিধান লিখবে। যেটা অনেকটা পাকিস্তানের মতো হবে, যেখানে সংখ্যালঘুদের কোনও সম্মান থাকবে না।

কংগ্রেস সাংসদের সেই মন্তব্য ঘিরে তীব্র বিতর্কের সৃষ্টি হয়। সমালোচনার ঝড় ওঠে রাজনৈতিক মহলে। সেই সময়েই শশী থারুরের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করেন কলকাতার আইনজীবী সুমিত চৌধুরী। সেই মামলার পরিপ্রেক্ষিতেই মঙ্গলবার কংগ্রেস সাংসদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছে ব্যাঙ্কশাল আদালত।

বিজ্ঞাপন