করোনার আতঙ্কে চায়না টাউন ত্যাগ ভোজনরসিক বাঙালির

0

কলকাতা: চিন থেকে করোনা এসে গিয়েছে ভারতের সবচেয়ে বড় চায়না টাউনে। কলকাতার ট্যাংরায় এই মারণ রোগের সম্ভাবনা দেখা গিয়েছে। সূত্রের খবর, এখনও পর্যন্ত চায়না টাউনে একজন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। কলকাতার চায়না টাউন টিরেটি বাজারে প্রায় ২০০০ জন চিনা মানুষ বসবাস করেন। তবে তাঁদের কারোরই এখন চিনের সঙ্গে কোনও সম্পর্ক নেই।

এখানকার নতুন প্রজন্ম বর্তমানে কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, ইউরোপ এবং সুইডেনের বাসিন্দা হয়ে গিয়েছেন। তা সত্ত্বেও চাইনিজ-প্রিয় ভোজনরসিক বাঙালির শেষ ঠিকানা টিরেটি বাজার। তবে চিনে করোনার সংক্রমণের খবর প্রকাশিত হওয়ার পর থেকেই ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে এখানকার রেস্তোরাঁগুলি।

প্রায় ৫০ থেকে ৬০ শতাংশ খরিদ্দার কমে গিয়েছে বলে জানিয়েছেন ট্যাংরার রেস্তোরাঁর মালিকরা। ট্যাংরার সুন লি রেস্তোরাঁর মালিক ম্যাথু জানিয়েছেন, ১ লা ফেব্রুয়ারি যেখানে প্রায় ৮১ জন এসেছিলেন, ৮ ফেব্রুয়ারি করোনার সংবাদ প্রকাশ হতেই খরিদ্দার কমে হয়ে যায় ৪৩। এরফলে প্রতিদিনই প্রায় ১৭ হাজার টাকার ক্ষতি হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি, বিগ বস, কিম লিং-এর মত বড় রেস্তোরাঁগুলিতে ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ৪ লক্ষ টাকা।