রাজ্যে অনলাইনে ক্লাস নেওয়ার ভার্চুয়াল প্রশিক্ষণ শুরু শিক্ষকদের

0

কলকাতা : করোনার কারণে প্রায় পাঁচ মাস বন্ধ রয়েছে স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়াশুনা। অনিয়ন্ত্রিত কাল ধরে স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ রাখা রাজ্যের পক্ষে কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে। কিছুদিনের মধ্যেই শুরু করতে হবে স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় সবকিছুই। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে ইঙ্গিত দিয়েছিলেন আগস্টে সব ঠিকঠাক চললে আগামী ৫ সেপ্টেম্বর থেকে চালু হতে পারে রাজ্যের কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় গুলি।

এই পরিস্থিতিতে সরকার নিয়ন্ত্রিত স্কুলগুলিতে কিভাবে অনলাইন ক্লাস নেওয়া যায় তার জন্য শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ দিতে শুরু করল রাজ্য স্কুল শিক্ষা দপ্তর। পশ্চিমবঙ্গেই প্রথম শিক্ষকদের ভার্চুয়ালি প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। মধ্যশিক্ষা পর্ষদ, সিলেবাস কমিটি এবং সর্বশিক্ষা মিশনের উদ্যোগে প্রশিক্ষণ দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। রাজ্যের শিক্ষক-শিক্ষিকাদের প্রাথমিকভাবে নবম ও দশম শ্রেণির ছাত্রছাত্রীদের কিভাবে ক্লাস নেওয়া উচিত তার প্রশিক্ষণ দিতে শুরু করেছে রাজ্য স্কুল শিক্ষা দপ্তর।

এই প্রসঙ্গে সিলেবাস কমিটির চেয়ারম্যান অভীক মজুমদার বলেন, ”সাধারণত শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ বিভিন্ন জেলায় গিয়েই দেওয়া হত। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতিতে শিক্ষকদের বিভিন্ন জেলায় গিয়ে প্রশিক্ষণ দেওয়া সম্ভব নয়। পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে অনলাইন ক্লাসে ছাত্র ছাত্রীরা পিছিয়ে পড়বে এটা হতে পারে না। তাই ভার্চুয়ালী শিক্ষকদের প্রশিক্ষণ দেওয়ার ব্যবস্থা নিয়েছে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য স্কুল শিক্ষা দপ্তর।

সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, ৫ সেপ্টেম্বর থেকে স্কুল-কলেজ খোলা সম্ভব হলেও সেটি হবে অল্টারনেটিভ দিনে। এছাড়াও ভার্চুয়াল ক্লাস নেওয়ার ক্ষেত্রে রাজ্যের অনেক স্কুল-কলেজের প্রযুক্তির সহায়তা নেই। বহু গ্রামে এখনো অব্দি মোবাইল ফোন বা ইন্টারনেট পরিষেবা সচল নয়। সেক্ষেত্রে বিকল্প পরিস্থিতিতে কিভাবে নবম দশম দ্বাদশ একাদশের পঠনপাঠন চালু করা যায় তা নিয়ে ভাবনা চিন্তা করছিল রাজ্য সরকার। ইতিমধ্যেই ছাত্র-ছাত্রীদের সুবিধার জন্য টেলিফোনে শিক্ষক-শিক্ষিকাদের সঙ্গে সরাসরি যোগাযোগের ব্যবস্থা করেছে রাজ্য স্কুল শিক্ষা দপ্তর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here