পুজো কমিটিগুলিকে খোলামেলা প্যান্ডেল করার অনুরোধ মুখ্যমন্ত্রীর

0

কলকাতা : বৃহস্পতিবার মহালয়া। আর আগামী ২৩ অক্টোবর থেকে শুরু হতে চলেছে বাঙালির বহু প্রতীক্ষিত শারদ উৎসব। তবে বর্তমান পরিস্থিতি যেন সেই আনন্দে বাঁধ সেজেছে। করোনা পরিস্থিতিতে সব অনুষ্ঠানই কাটছাঁট হয়েছে। দুর্গাপুজোরই বা ভবিষ্যৎ কী? পুজো যত এগিয়ে আসছে ততই যেন চিন্তা গভীর হচ্ছে পুজো কমিটিগুলির। পাশাপাশি সাধারণ মানুষেরও। সকলের মনেই এক প্রশ্ন, কি হবে এবারের দুর্গাপুজো? যদিও এখনও সে বিষয়ে কিছু জানায়নি রাজ্য সরকার।

আগামী ২৫ সেপ্টেম্বর পুজো কমিটিগুলির সদস্যদের সঙ্গে বৈঠকে সমস্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৈঠকের পরই কোভিড পরিস্থিতিতে কীভাবে দুর্গাপুজো হবে, সে সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানান রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান। সোমবার নবান্নে গ্লোবাল অ্যাডভাইজারি বোর্ডের সঙ্গে বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী। তারপর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি বলেন, “পুজো কমিটিগুলিকে অনুরোধ করব, খোলামেলা প্যান্ডেল করার। কারণ, অনেকেই অঞ্জলি দিতে আসেন। তাতে ভিড় বাড়বে। প্যান্ডেলের একাংশ খোলা থাকলে হাওয়া, বাতাস বইবে। জীবাণু থাকলে তা বেরিয়ে যাবে। যা প্যান্ডেলে ভিতরে থাকা ভেন্টিলেটর দিয়ে বেরনো সম্ভব নয়।” গ্লোবাল অ্যাডভাইজারি বোর্ডের পরামর্শ অনুযায়ীই তিনি একথা বলেছেন বলে জানান।

বলা বাহুল্য, সম্প্রতি দুর্গাপুজো নিয়ে একটি ভুয়ো মেসেজ ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ায়। যার জেরে অত্যন্ত ক্ষুব্ধ হন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ভুয়ো মেসেজ ছড়ানোর জন্য নাম না করে বিজেপিকেই দায়ী করেন তিনি। তড়িঘড়ি ধরপাকড়ের নির্দেশ দেন। ভুয়ো মেসেজ ছড়ানোর দায়ে কলকাতা এবং রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বেশ কয়েকজনকে গ্রেফতারও করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here