হাথরাসের গণধর্ষণ কাণ্ডের প্রতিবাদ আজ কলকাতার রাজপথের মিছিল, নেতৃত্ব দেবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

0

কলকাতা: আবারও সেই আট বছর আগেকার নির্ভয়ার স্মৃতি মনে করিয়ে দিয়েছে উত্তরপ্রদেশের দলিত তরুণীকে গণধর্ষণের ঘটনা। এই ঘটনা নিয়েই উত্তাল হয়েছে সমগ্র দেশ। সেই সঙ্গে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের সমালোচনায় সরব হয়েছে। দেশ সহ রাজ্যের মানুষ যোগী সরকার ও তার পুলিশকে আরও ধিক্কার জানিয়েছে পরিবারের সম্মতি না নিয়ে জোর করে ধর্ষিতা যুবতীর দেহ দাহ করার জন্য। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই ঘটনার প্রতিবাদে আজ অর্থাৎ শনিবার রাস্তায় মিছিলের নেতৃত্ব দেবেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী।

শুক্রবার তৃণমূলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে গত ১৪ সেপ্টেম্বর উত্তরপ্রদেশের হাথরাসের এক দলিত তরুণীকে গণধর্ষণের ও দু সপ্তাহ পর তাঁর নৃশংস মৃত্যুর প্রতিবাদে কলকাতার রাস্তায় হাঁটবে তৃণমূল। সেই মিছিলের নেতৃত্ব দেবেন স্বয়ং বঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী। আজ বিড়লা তারামণ্ডল থেকে ধর্মতলায় গান্ধীমূর্তি পর্যন্ত বিকেল ৪ টের সময় মিছিল করা হবে। প্রসঙ্গত উত্তরপ্রদেশের হাথরাসে নির্যাতিতার পরিবারের সঙ্গে শুক্রবার দেখা করেতে গিয়েছিলেন তৃণমূলের সাংসদরা। কিন্তু তাঁদের দেখা করতে না দিয়ে পথ আটকেছিল যোগীর রাজ্যের পুলিশ এমনটাই অভিযোগ করা হয়েছে। হাথরাসের ঘটনা নিয়ে তৈরি হয়েছে রাজনৈতিক সমালোচনা। বিজেপি শাসিত রাজ্যে এই ঘটনার জন্য বিজেপি বিরোধী দলগুলি বিজেপির তীব্র সমালোচনা করেছে।

হাথরাসের নির্যাতিতার মৃত্যুর পর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ট্যুইট করে লিখেছিলেন, “হাথরাসে ঘটনায় জড়িত যুবতী দলিত মেয়েকে ধর্ষণের ঘটনা বর্বর ও লজ্জাজনক, এই ঘটনায় নিন্দা জানাতে কোন ভাষা নেই। পরিবারের প্রতি আমার গভীর সমবেদনা। পরিবারের উপস্থিতি বা সম্মতি ছাড়াই জোর করে দাহ করার ঘটনা আরও লজ্জাজনক, ধিক্কার তাঁদের যারা শুধু ভোটের জন্য স্লোগান এবং উচ্চ প্রতিশ্রুতি ব্যবহার করেন।” অন্য দিকে চাপে পড়ে উত্তরপদেশের গণধর্ষণের ঘটনার দ্রুত তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন যোগী আদিত্যনাথ। গঠন করা হয়েছে তদন্তকারী দল এসপি, ডিএসপি-সহ পুলিশ প্রশাসনের একাধিক আধিকারিককে বরখাস্ত করেছে যোগী সরকার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here