করোনা চিকিৎসার খরচ কম করল রাজ্য সরকার

0

কলকাতা: আসন্ন উৎসবের মরসুমে করোনার প্রকোপ বাড়লে তার মোকাবিলা করার জন্য রাজ্য সরকার একাধিক ব্যবস্থা নিচ্ছে। করোনা চিকিৎসার পরিকাঠামো বৃদ্ধি সহ এই সমস্ত সিদ্ধান্ত আজ রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠকে গৃহীত হয়েছে। বৈঠকের পর মুখ্য সচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় জানান পুজোর আগেই বিভিন্ন সরকারি কোভিড হাসপাতালে শয্যা সংখ্যা ৫০ শতাংশ বাড়ছে। বর্তমানে এই সব হাসপাতালগুলিতে বিনামূল্যে করোনা চিকিৎসার জন্য ১২৪৭ টি শয্যা রয়েছে। এর সঙ্গে আরো ৬০০ বেড যুক্ত করা হচ্ছে।

পাশাপাশি রোগীদের যথাযথ পরিষেবা দিতে পুজোর আগেই আরো ২৫০০ নার্স নিয়োগ করা হবে। করোনা চিকিৎসার খরচ কমাতেও রাজ্য সরকার উদ্যোগী হচ্ছে বলে মুখ্য সচিব জানিয়েছেন। তিনি জানান করোনা নমুনা পরীক্ষার খরচ ২২০০ টাকা থেকে কমিয়ে ১৫০০ টাকা করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। কভিড রোগীদের সরকার বিনামূল্যে অ্যাম্বুলেন্স পরিষেবা দিয়ে থাকে। বেসরকারি ক্ষেত্রও অ্যাম্বুল্যান্স ভাড়া যাতে কিছুটা কমানো হয় সে ব্যাপারে রাজ্য সরকার বেসরকারী হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন জানিয়েছেন। রাজ্যের স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রণ কমিশন এব্যাপারে সংশ্লিষ্ট হাসপাতাল গুলির সঙ্গে কথা বলবে। বর্তমান পরিস্থিতির প্রেক্ষিতে কভিড্ চিকিৎসার সঙ্গে যুক্ত কর্মীদের পুজোয় ছুটি বাতিল করা হয়েছে বলে তিনি জানান

পুজোর সময় নবান্ন ও স্বাস্থ্য ভবনে ২৪ ঘণ্টার হেল্পলাইন ও চালু থাকবে। করোনা সংক্রমণ মোকাবিলায় রাজ্য সরকার আসন্ন দুর্গাপুজোর দিনগুলিতে রাজ্যজুড়ে বিভিন্ন পুজো কমিটিকে কোভিড সংক্রান্ত সতর্কতামূলক প্রচার করার আবেদন জানিয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি আজ নবান্নে বিভিন্ন পুজো কমিটির উদ্দেশ্য মাস্ক না পরলে দর্শনার্থীদের প্যান্ডেলে প্রবেশের অনুমতি না দেওয়ার নির্দেশ দেন। সরকারি নীতি নির্দেশিকা মেনে পুজো করার পাশাপাশি ভার্চুয়াল পদ্ধতিতেও পুজো করার পরামর্শ দেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, সবাই ভালো ভাবে পুজো কাটান। কিন্তু সংক্রমন বাড়ছে কমিউনিটি স্প্রেড হচ্ছে নিশ্চই। দূরত্ব বজায় রাখুন, মাস্ক পড়ুন। যারা করোনা সতর্কতা বজায় রাখবে, তাদের বিশ্ব বাংলা পুজো পুরস্কারে ১০ পয়েন্ট একস্ট্রা দেওয়া হবে। ভিভিআইপি দিয়ে পুজো উদ্বোধন করা থেকে বিরত থাকুন।

পুজোর সময় যে কোনোও ধরনের সাহায্যের জন্য টোল ফ্রি ১০৭০ অথবা ০৩৩- ২২১৪-৩৫২৬ নম্বরে যোগাযোগ করার কথা বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী। ভিড় এড়াতে এই বছর তিনি ১৫ অক্টোবর থেকে তিন দিন ধরে ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে বিভিন্ন পুজো উদ্বোধন করবেন বলেও জানিয়েছেন। তার নিজের অফিসের কয়েকজন আধিকারিক করোনায় সংক্রমিত হওয়ায় মুখ্যমন্ত্রী গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here