ক্ষমতায় আসলে যেকোনও রাজনৈতিক দলের কর্মীদের মিথ্যে মামলার হাত থেকে রেহাই দেওয়া হবে, আশ্বাস দিলীপ ঘোষের

0

কলকাতা: বিতর্কিত বা সমালোচনা মূলক মন্তব্যে প্রকাশ্যে আসলেই সবার প্রথমে যার নাম মাথায় আসে তিনি হলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। কয়েকদিন আগেই তিনি করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। করোনার হাত থেকে মুক্ত হওয়ার পরেই চা চক্রে এসে দিলীপ ঘোষের বক্তব্য, ২০২১-এ বিজেপি ক্ষমতায় এলে যেকোনও রাজনৈতিক দলের কর্মীদের উপর তৃণমূলের চাপানো মিথ্যা মামলার হাত থেকে মুক্ত করা হবে। এমনকি তৃণমূলে থাকা যে সব কর্মীদের নামে মিথ্যা মামালা রয়েছে তাঁদেরও মুক্ত করার কথা জানিয়েছেন দিলীপ ঘোষ। বিজেপির রাজ্য সভাপতি আশ্বাস দিয়ে বলেছেন, আগামী বিধানসভা নির্বাচনে জিতে বিজেপি রাজ্যে ক্ষমতায় এলে সব রাজনৈতিক দলের কর্মীদের নামে থাকা মামলা তুলে নেওয়া হবে।

তিনি মিথ্যা মামলা তোলার প্রসঙ্গে বলেছেন, ‘‘এক সময় নিজের দলের কর্মীদের খুনি করিয়ে দলের কর্মীদের নামেই মামলা করত সিপিএম। তৃণমূলও কর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা করে রেখেছে। যাতে তাঁরা ভয়ে দল ছাড়তে না পারে। আমি তাই বলেছি এ ধরণের যত প্রতিহিংসাপরায়ণ রাজনৈতিক মিথ্যে মামলা আছে, তা যে দলেরই হোক, তাকে আমরা মুক্তি দেব।” আর আগেও দিলীপ সুর চড়িয়ে বলেছিল যে তৃণমূল সরকার বিজেপি কর্মীদের মিথ্যে মামলায় ফাঁসানো হচ্ছে। তবে এবার নির্বাচনের আগেই তাঁর গলাতে সনা গেল অন্য সুর। করোনার হাত থেকে মুক্ত হওয়ার পরেই প্রথম জ্যাংড়ায় চা চক্রের অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে এই মন্তব্য করেছেন তিনি। সেই সঙ্গে তিনি বিজেপি কর্মীদের খুন নিয়ে শাসক দলকে কটাক্ষ করেছেন।

বুধবার বিজেপি রাজ্যস্তরে সংগঠনে বড়সড় রদবদল হয়েছে। সুব্রত চট্টোপাধ্যায়কে সাধারণ সম্পাদক (সংগঠন) পদ থেকে সরিয়ে সেই জায়গায় বসান হয়েছে অমিতাভ চক্রবর্তী। এই প্রসঙ্গে এদিন দিলীপ ঘোষ বলেন, “সংগঠন করতে এসেছি আমরা। সংগঠন যেটা ঠিক করে, যাকে যা দায়িত্ব দেয় সেই দায়িত্ব আমরা পালন করি। সুব্রতদা বিজেপিতে ৫-৬ বছর কাজ করেছেন, তারপর ওনাকে হয়তো অন্য দায়িত্ব দেওয়া হবে। এই পরিবর্তন সংগঠনে চলতেই থাকে। এইভাবে আমরা কাজ করি।” এক কথায় বলতে গেলে ২১-এর নির্বাচনে তৃণমূলের হাত থেকে ক্ষমতা কেড়ে নিতে মরিয়া বিজেপি। তাই বিধানসভা নির্বাচনে জেতার জন্য নানান পন্থা অবলম্বন করা শুরু করেছে বিজেপি। শাসক দলকে ভেঙে নিজেদের দল গড়তে তাই নানান ভাবে কাজ চালাচ্ছে বঙ্গ বিজেপির নেতারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here