‘জয় শ্রীরাম’ বার্তা লিখে মমতাকে এক লক্ষ কার্ড পাঠাবে বিজেপি

0

কলকাতা: শনিবার ২৩ জানুয়ারি সুভাষচন্দ্র বসুর জন্মদিন উপলক্ষ্যে ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়াল হলে বিশেষ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, রাজ্যপাল জয়দীপ ধনকড়। অনুষ্ঠানসূচী মতো সবকিছু ঠিকঠাক চলছিল। কিন্তু তাল কাটল মুখ্যমন্ত্রীর বক্তৃতা দিতে ওঠার সময়। মুখ্যমন্ত্রী বক্তৃতা দিতে মঞ্চের চেয়ার ছেড়ে পোডিয়ামের দিকে এগোতেই দর্শকাসন থেকে ‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগান ওঠে। রীতিমত বিরক্ত, ক্ষুব্ধ হয়েই বক্তব্য বয়কট করেন, তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে পোডিয়াম ছাড়েন।

তবে এখানেই থেমে থাকছে না গেরুয়া শিবির। এরপরই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে এক লাখ জয় শ্রীরাম লেখা পোস্ট কার্ড পাঠাবে বিজেপি। গেরুয়া শিবির এখানেই থেমে থাকছে না, বিষয়টি নিয়ে বাড়াবাড়ি শুরু করেছে বিজেপি। এই বিষয়ে বিজেপির মুখপাত্র তেজিন্দর সিং বাগ্গা টুইটে লিখেছিলেন, “জয় শ্রীরাম শুনলেই মমতা দিদি ভয় পেয়ে যান? আপনারা সকলেই নিজেদের নিকটবর্তী পোস্ট অফিস থেকে কার্ড সংগ্রহ করে তাতে জয় শ্রীরাম লিখে মমতা দিদির ঠিকানায় পাঠিয়ে দিন।”

নেতাজি নিয়ে যেন দড়ি টানাটানি খেলা শুরু হয়েছে বঙ্গ রাজনীতিতে। এরই মধ্যে রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ জানিয়ে দিলেন– নেতাজিকে নিয়ে রাজনীতি করা হবেই। রবিবার নদিয়া উত্তরের বিজেপি শিক্ষা সেলের সংগঠনের পক্ষ থেকে ধুবুলিয়া থানার হাঁসডাঙা এলাকায় একটি কার্যবাহী বৈঠকে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, “নেতাজি রাজনৈতিক নেতা ছিলেন। তাঁকে নিয়ে রাজনীতি করবই। কারোর বাপের হিম্মত আছে তো আটকাক। জয় শ্রীরামকে যারা ভয় পায় তাদের রাজনীতি করা উচিত নয়। প্রতিদিন রাস্তায় দাঁড়িয়ে আমাকে গো ব্যাক স্লোগান, কালো পতাকা দেখায় আমি তো কিছু বলি না।”