ক্ষমতা ধরে রাখাই এক মাত্র লক্ষ্য, কালীঘাটে দলের সাংসদ-বিধায়কদের নিয়ে বৈঠক ডাকলেন মুখ্যমন্ত্রী

0

কলকাতা: বাংলার দরজায় এসে কড়া নাড়ছে ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচন। বাংলা দখলের জন্য যেমন মরিয়া হয়ে রয়েছে বিজেপি তেমনি শাসক দল তৃণমূল এক ইঞ্চি জমি ছাড়তে নারাজ। তাই নিয়েই এখন বঙ্গ রাজনীতি তুঙ্গে। নির্বাচনী কৌশল সাজাতে শাসক-বিরোধী দুই দলই আদা জল খেয়ে মাঠে নেমে পড়েছে। কার থলে যাবে বাংলার শাসন ভার এই নিয়ে যখন সকলের কৌতুহল তুঙ্গে ঠিক তার মধ্যেই দলের সাংসদ বিধায়কদের নিয়ে বৈঠক ডেকেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন যত এগিয়ে আসছে ততেই বেসুরো হচ্ছেন বহু তৃণমূলের নেতা। যা স্বাভাবিক ভাবেই কিছুটা হলেও চাপে ফেলেছে শাসক দলকে। সমস্ত দিক খতিয়ে দেখেই দলের অন্দরের যাবতীয় সমস্যা সমাধানের জন্য আগামী ২৯ জানুয়ারি কালীঘাটে নিজের বাসভবনে দলের সাংসদ বিধায়কদের নিয়ে বৈঠক ডেকেছেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে সকলে উপস্থিত থাকার জন্য বার্তা দেওয়া হয়েছে। আগামী দিনে কিভাবে বিরোধীদের মোকাবিলা কড়া হবে, রাজ্যের পরিস্থিতি সহ একাধিক বিষয় সেই নিয়েই আলোচনা হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। সেই সঙ্গে দলের একাংশের ক্ষোভ, অভিযোগ সমস্ত কিছু শোনা হবে ও তা নিয়ে আলোচনা করা হতে পারে। বলা বাহুল্য যে, তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের ঘটনা নিয়েই এখন উত্তাল হয়ে রয়েছে বঙ্গ রাজনীতি। সুযোগ পেলেই সমস্ত দিক থেকে শাসক দলকে আক্রমণ করতে ছাড়ছেন না রাজ্য সরকারের মূল বিরোধী দল বিজেপি।

বলা ভালো যে কোনও দিক থেকেই ফাঁক রাখতে চাইছে না শাসক দল। ইতিমধ্যেই মমতা তাঁর মাস্টারস্ট্রোক ব্যবহার করেছেন যার সাফল্যের চিত্র ধরা পড়েছে রাজ্য জুড়ে। ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে কিছুটা খারপ ফল করলেও মমতার মস্তিষ্কপ্রসূত প্রকল্প দুয়ারে সরকার ও স্বাস্থ্যসাথী সেই শূন্যস্থানকে পূরণ করে দিয়েছে।