‘সমর্থনের জন্য সকলকে ধন্যবাদ’, ‘দিদিকে বলো’ কর্মসূচির ৫০০ দিন পূর্তিতে ট্যুইট মমতার

0

কলকাতা: বিধানসভা নির্বাচনের আগে তৃণমূল সরকারের একের পর সাফল্য রাজ্যবাসীর সামনে তুলে ধরছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিরোধীদের কাবু করতে মমতার মাস্টারস্ট্রোকের মধ্যে একটি হল ‘দিদিকে বলো’ কর্মসূচির। মুখ্যমন্ত্রীর এই ধারলো অস্ত্রে কাত হয়েছেন বিরোধীরা। এই প্রকল্পের ৫০০ দিন পূর্ণ হল। এই কর্মসূচীকে সমরথন করার জন্য ও সাফল্য এনে দেওয়ার জন্য মুখ্যমন্ত্রী ট্যুইতে সকলকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

মুখ্যমন্ত্রী ট্যুইট করে লিখেছেন, ”আমি আনন্দের সঙ্গে জানাচ্ছি, ‘দিদিকে বলো’ কর্মসূচি আজ ৫০০ দিন পুরণ করেছে। এই ৫০০ দিনে ৯১৩৭০৯১৩৭০ হেল্পলাইন নম্বরে ফোন করে উপকার পেয়েছেন ২৮ লক্ষ মানুষ। সব মিলিয়ে ৮০ লক্ষ মানুষের কাছে পৌঁছে গিয়েছে এই কর্মসূচি। এই কর্মসূচিতে সমর্থনের জন্য সকলকে ধন্যবাদ।”মমতা আরও লিখেছেন, “দিদিকে বলো’ থেকে পাওয়া পরামর্শের ভিত্তিতেই রাজ্য সরকার ষষ্ঠ বেতন কমিশন চালু করেছে, সামাজিক সুরক্ষা যোজনা আরও ব্যাপক হারে কার্যকর করছে। চালু হয়েছে পথশ্রী, দুয়ারে সরকার, পাড়ায় সমাধান, জয় জোহর, স্নেহের পরশ, প্রচেষ্টা, তফসিলি বন্ধুর মতো বহু প্রকল্প।” ২০২৯ এর লোকসভা নির্বাচনে খারাপ ফল হওয়ার পর সেই ক্ষতিপূরণ সামাল দিতে ‘দিদিকে বলো’ কর্মসূচী যে বিরোধীদের বেশ চাপে ফেলেছে তা পরোক্ষ ভাবে স্বীকার করেছেন বিরোধীরা।

এখানেই শেষ নয় নির্বাচনের আগে একের পর এক বাজি মাত করছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। করোনা মহামারির মধ্যেও সমস্ত বাধা সরিয়ে সরকারি প্রকল্পের সুবিধা রাজ্যবাসীর ঘরে ঘরে পৌঁছে দেওয়ার জন্য আন্তর্জাতিক মহলে ফের প্রশংসিত হলেন মমতা। এই কাজ গুলির জন্য বুধবার মমতার প্রসংসায় করল বিশ্বব্যাংক, ইউনিসেফ। মমতার প্রকল্প গুলির আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি লাভ এটাই প্রথম নয়। এর আগেও বিশ্বের দরবারে ‘কন্যাশ্রী’ প্রকল্প আন্তর্জাতিক ভাবে সম্মানিত ও প্রশংসিত হয়েছে। মেয়েদের জন্য এই উদ্যোগকে সকলেই এক বাক্যে বাহবা দিয়েছিল। তবে শুধু ‘কন্যাশ্রী’ নয় ‘সবুজ সাথী’, ‘রূপশ্রী’ সহ তৃণমূল সকারের নানান প্রকল্পকে সেরা বলেই উল্লেখ করেছিল আন্তর্জাতিক সংস্থা। আন্তর্জাতিক মহলে মমতার সরকারের এই প্রশংসা যে আগামী নির্বাচনী যুদ্ধে তৃণমূল সরকারকে আরও এক ধাপ এগিয়ে দেবে সেটা বলার আর অপেক্ষা রাখে না।