প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবি মুখ্যমন্ত্রীর, বিজেপি বিধায়কদের জয় শ্রী রাম স্লোগানে তুলকালাম বিধানসভা

0
mamata-modi

কলকাতা: দেশের বর্তমান পরিস্থিতির বিচারে অবিলম্বে দেশের প্রধানমন্ত্রীকে পদত্যাগের দাবি করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার বিধানসভায় কৃষি বিলের বিপক্ষে বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিন বলেন, দেশের পরিস্থিতি ক্রমশ নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে‌। তাই এখুনি প্রধানমন্ত্রীকে পদত্যাগ করা উচিত।

বৃহস্পতিবার সরকারের তরফ থেকে তিনটি কৃষি আইন প্রত্যাহারের দাবিতে প্রস্তাব আনা হয়। পার্থ চট্টোপাধ্যায় বিধানসভায় সেই প্রস্তাব পেশ করেন। এরপরই তুলকালাম বেঁধে যায় বিধানসভায়। বিরোধীরা ‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগান তু্লতে থাকেন বিজেপি নেতারা। ওয়েলে নেমে বিক্ষোভ দেখান তারা। মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য চলাকালীন-ই ওয়াকআউট করেন বিধায়ক মনোজ টিগ্গা, স্বাধীন সরকার, আশিস বিশ্বাস, সুদীপ মুখোপাধ্যায়, দুলাল বর-সহ সকল বিজেপি বিধায়ক।

তুমুল হট্টগোলের মধ্যেই সরকার পক্ষের আনা প্রস্তাবের সমর্থনে মুখ্যমন্ত্রী বলতে থাকেন, “এটা খুব দুঃখের বিষয় যে কেউ আন্দোলন করলে, সন্ত্রাসবাদী তকমা দিয়ে সেই আন্দোলন ভেঙে দেওয়া হচ্ছে। ২৬ জানুয়ারি পুলিসের ইনটেলিজেন্স ফেলিওর ছিল। পুলিস নিয়ন্ত্রণ করতে পারেনি। একটা-দুটো ছোট ঘটনা আন্দোলনের মধ্যে হতেই পারে, কিন্তু তার জন্য কৃষকদের দেশদ্রোহী, খালিস্থানি বলার তীব্র বিরোধিতা করছি।” আক্রমণের সুর চড়িয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উদ্দেশ্যে কৃষি আইনের বিরোধিতায় বিধানসভায় ভাষণে পদত্যাগ দাবি করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “হয় এই তিনটি বিল প্রত্যাহার কর, নয় সরকার গদি ছাড়ো। দেশের পরিস্থিতি এখন হাতের বাইরে চলে গিয়েছে। তাই প্রধানমন্ত্রীর উচিত পদত্যাগ করা।” চ্যালেঞ্জ ছোঁড়েন, “আগে দিল্লি সামলা, তারপর বাংলা।”

এদিন চাষিদের পাশে থাকার বার্তা দিয়ে তিনি বলেন, ”কৃষকদের উপর যে অত্যাচার হয়েছে, তার জন্য বিজেপি সরকার দায়ী”। বিজেপি বিরোধী সুর আরও চড়িয়ে তাঁর বক্তব্য, ”আমাদের মধ্যে আদর্শগত বিভেদ থাকতে পারে। কিন্তু কৃষকরা লালকেল্লা দখল করতে গিয়েছিলেন, তা আমি বিশ্বাস করি না। কৃষকরা খলিস্তানি নয়। কৃষক বিলগুলো জোর করে পাস করানো হয়েছে। তিনটি আইনই প্রত্যাহার করতে হবে। কৃষকদের সব কর মকুব করতে হবে।”