বাকি ১০১ টির মধ্যে বাম-কংগ্রেস জোটের কাছে ৬০-৭০ টি আসন চাইলেন আব্বাস সিদ্দিকী

0

কলকাতা: কয়েকদিন ধরেই কানাঘুষো শোনা যাচ্ছে বাম-কংগ্রেস ও আব্বাস সিদ্দিকীর জোটের। এদিকে জোটের আসন ভাগাভাগির পর্ব মেটেনি। এরই মধ্যে জোটের কাছে ৬৫-৭০টি আসন চেয়ে বসলেন আব্বাস সিদ্দিকীর ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্ট(আইএসএফ)। যা নিয়ে ভোটের আগে অস্বস্তিতে বাম-কংগ্রেস জোট। কারণ এতগুলি তাঁকে ছাড়া হবে কিনা তা নিয়ে ধন্দে সুজন – অধীররা।

উল্লেখ্য, এখনও অবদি বাম – কংগ্রেস জোটের ১৯৩ টি আসন রফা হয়ে গিয়েছে। ৯২ টি আসনে লড়বে কংগ্রেস আর ১০১টি আসনে লড়বে বামেরা। এখনও ১০১ টি আসন রফা হয়নি। এবার এই ১০১টি আসনের মধ্যে ৬০-৭০ টি আসন চাইছে সিদ্দিকীর ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্ট। দু’পক্ষের একাধিক বৈঠক হয়েছে বিগত কয়েকদিনে। সেই বৈঠকেই আব্বাস সিদ্দিকী এই দাবি রখেছে। এখনও বিষয়টি নিয়ে নিষ্পত্তি হয়নি বলেই জানা গিয়েছে। তবে দু’পক্ষেরই জোটে সায় রয়েছে বলে শোনা গিয়েছে। কিন্তু বিবাদ আসন বন্টন নিয়ে।।

আব্বাসের ঘনিষ্ঠ মহল সূত্রে জানা গিয়েছে, আগামী ১৬ কিংবা ১৭ তারিখে মধ্যে এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়ে যাবে। আর তারপরেই সব পক্ষের নেতারা প্রকাশ্যে এক সঙ্গে বসেই তা ঘোষণা করবেন। তবে আইএসএফের দাবি কিছুটা ভাবিয়ে তুলেছে জোটের নেতাদের। কারণ আসন বন্টন নিয়ে আলোচনার টেবিলেই আব্বাসের সঙ্গে জোট ভেস্তে যাক চায় না বাম-কংগ্রেস। উল্লেখ্য, চলতি মাসের ৭ তারিখ পর্যন্ত চূড়ান্ত সময়সীমা বেঁধে দিয়েও কিছুটা পিছিয়ে এসে জোট নেতৃত্বকে সময় দিয়েছেন তিনি।

তবে ৬৫-৭০টি আসন চাওয়ার কথা প্রকাশ্যে স্বীকার করতে চাননি আইএসএফের চেয়ারম্যান নওশাদ সিদ্দিকি। তাঁর কথায়, ‘‘জোটে কে কত আসন চেয়েছে তা প্রকাশ্যে বলা আমাদের নীতির বিরুদ্ধে। জোটের আলোচনা চলছে। আগামী সপ্তাহেই সাংবাদিক বৈঠক করে সবকিছু স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হবে।’’

এদিকে ভোটের দিনও এগিয়ে আসছে। যেকোনো সময় ভোটের নির্ঘন্ট ঘোষণা হয়ে যেতে পারে। তাই তার আগেই জোটের আসন বন্টন সম্পন্ন হোক সেটাই চাইছে সকলে। অন্য দিকে এআইসিসি-ও চাইছে দ্রুতই পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচনে জোটের আসনরফা চূড়ান্ত হয়ে যাক। কারণ, পশ্চিমবঙ্গের ভোট ক্রমশ তৃণমূল ও বিজেপির দ্বিমুখী লড়াইয়ের দিকে চলে যাচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here