নারী দিবসে বিশেষ উদ্যোগ: দরিদ্রদের সহায়তায় হাত বাড়িয়ে দিল হেল্পিং হ্যান্ডস সংস্থা

0

কলকাতা: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পশ্চিমবঙ্গ সরকার দরিদ্র, অভাবী ও সাধারণ মানুষের মঙ্গল ও বিকাশের জন্য অনেক পরিকল্পনা চালিয়েছে। তবে একই সাথে কিছু স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাও দরিদ্রের মঙ্গলের জন্য কাজ করছ। এই রকমই একটি সংস্থা হল হেল্পিং হ্যান্ডস। এই সংস্থা নিয়মিত রক্তদান শিবির, বিনামূল্যে চক্ষু পরীক্ষা এবং চশমা জাতীয় কর্মসূচি পালন করে। করোনা লকডাউনের সময় সহায়তার হাত বাড়িয়ে মানুষের জন্য প্রচুর কাজ করেছিল।

বিনামূল্যে খাদ্য সামগ্রী, মাস্ক এবং স্যানিটাইজার বৃহৎ আকারে বিতরণ করেছিল। এখন হেল্পিং হ্যান্ডস একটি বড় পদক্ষেপ নিয়েছে এবং মহিলাদের স্বাবলম্বী করার লক্ষ্যে একটি কম্পিউটার প্রশিক্ষণ এবং সেলাই প্রশিক্ষণ কেন্দ্র শুরু করেছে। হেল্পিং হ্যান্ডস চেয়ারম্যান ব্রজেশ সিং বলেছেন যে, “আমরা অর্থনৈতিকভাবে পিছিয়ে পড়া মহিলাদেরকে নিজের পায়ে দাঁড় করানোর উদ্যোগ নিয়েছি। যার জন্য আমরা কম্পিউটার এবং সেলাইয়ের প্রশিক্ষণ দেব। সবচেয়ে বড় বিষয় এই প্রশিক্ষণ সম্পূর্ণ নিখরচায় থাকবে। বর্তমান যুগে কম্পিউটার শিক্ষা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ, তবে দরিদ্র মহিলাদের কম্পিউটার শিক্ষা পাওয়া খুব কঠিন। আমরা তাদের বিনামূল্যে কম্পিউটার প্রশিক্ষণ দেওয়ার ব্যবস্থা করেছি।”

সংগঠনের মহিলা কক্ষের চেয়ারপারসন কিরণ তিওয়ারি বলেছেন, “মহিলা দিবস উপলক্ষ্যে আমরা হেল্পিং হ্যান্ডসের পক্ষে নারীর ক্ষমতায়নের লক্ষ্য নিয়ে এই উদ্যোগ নিয়েছি। আমরা বিশ্বাস করি যে মহিলারা স্বাবলম্বী নাহলে তারা নিজের পায়ে দাঁড়াবেন না। সমাজ ও দেশের কোনও উন্নয়ন হবে না।” এন্টালির বিদায়ী বিধায়ক এবং পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা আসনের তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী স্বর্ণকল সাহা হেল্পিং হ্যান্ডসের এই প্রয়াসের প্রকাশ্যে প্রশংসা করেছেন। স্বর্ণকমল সাহা বলেছেন যে, “যেভাবে হেল্পিং হ্যান্ডস সমাজের অর্থনৈতিকভাবে পিছিয়ে পড়া লোকদের, বিশেষত মহিলাদের সাহায্য করার জন্য সাহায্যের হাত বাড়িয়েছে তার যত প্রশংসা করা হয় তত কম।”