পায়ে প্লাস্টার নিয়ে এসএসকেএমে চিকিৎসাধীন মুখ্যমন্ত্রী, বসানো হয়েছে মেডিকেল বোর্ড

0

কলকাতা: একুশের নির্বাচনের আগেই তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি। নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে গুরুতর আহত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বাঁ পায়ের গোড়ালি, পায়ের পাতা, গলা ও কাঁধে চোট নিয়ে কলকাতার এসএসকেএম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তিনি। আপাতত আগামী ৪৮ ঘণ্টার পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে মুখ্যমন্ত্রীকে। বুধবার নন্দীগ্রামে নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে পায়ে গুরুতর চোট পান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রেয়াপাড়ায় একটি মন্দিরে পুজো দিয়ে বেরানোর সময় ধাক্কাধাক্কিতে পায়ে চোট লাগে তাঁর। সে দিন নন্দীগ্রামে থাকার কথা ছিল তাঁর।

কিন্তু প্রচারপর্ব অসম্পূর্ণ রেখেই কলকাতায় ফিরতে হয় তৃণমূল নেত্রীকে। গ্রীন কড়িডোর করে তাঁকে তড়িঘড়ি কলকাতায় আনা হয়। কলকাতায় ফিরে এসএসকেএমে-র উডবার্ন ওয়ার্ডের সাড়ে ১২ নম্বর কেবিনে ভর্তি করা হয় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। এরপর বাঙুর ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেসে এমআরআই করা হয় তাঁর। হাসপাতাল সূত্রে খবর, মমতার বাঁ-পায়ের গোড়ালি ও পায়ের পাতার হাড়ে চিড় ধরেছে। পায়ের পেশিতেও চোট লেগেছে। গতকাল রাতে এমআরআইয়ের পর পায়ে ‘টেম্পোরারি প্লাস্টার’ করা হয়েছে। শুরু হয়েছে অ্যান্টিবায়োটিক। পায়ের ফোলা ভাব কমলে আজ প্লাস্টার করা হতে পারে। ডান কাঁধ ও কনুইয়েও আঘাত লেগেছে বলে জানা গিয়েছে। চোট রয়েছে ঘাড়েও।

এদিকে মুখ্যমন্ত্রীর চিকিৎসার জন্য ৯ সদস্যের একটি দল গঠন করা হয়েছে। এসএসকেএমের অধ্যক্ষ মণিময় বন্দ্যোপাধ্যায় ছাড়াও তিন বিভাগীয় প্রধান ও আরও পাঁচ বিশেষজ্ঞ রয়েছেন মেডিক্যাল বোর্ডে। রাখা হয়েছে অর্থোপেডিক, নিউরো সার্জারি, নিউরো মেডিসিন, জেনারেল সার্জারি, কার্ডিওলজি, এন্ডোক্রিনোলজি, জেনারেল মেডিসিন এবং অ্যানাস্থেশিয়া বিভাগের বিশেষজ্ঞদের। মুখ্যমন্ত্রীর রক্তের একাধিক রুটিন পরীক্ষা করা হবে। তাঁকে ৪৮ থেকে ৭২ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণে রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন চিকিৎসকেরা। আজ দিনভর মুখ্যমন্ত্রীর স্বাস্থ্যের দিকে নজর রাখবেন চিকিৎসকরা। বেশ কিছু পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার পরই পরবর্তী পদক্ষেপ ঠিক করা হবে।