দরজার কাছে কেউ ছিল না, প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি কেউ ধাক্কা দেয়নি মুখ্যমন্ত্রীকে

0

নন্দীগ্রাম: গতকাল নন্দীগ্রামের বেরুলির কাছে এক মন্দির দর্শনের পর মুখ্যমন্ত্রী পায়ে প্রবল আঘাত প্রাপ্ত হন। তাঁর অভিযোগ ইচ্ছাকৃত ভাবে ৪-৫ জন তার গাড়ির দরজা ধাক্কা মারে এবং তার ফলে মুখ্যমন্ত্রীর পায়ে অত্যন্ত চোট লাগে। তবে এই ঘটনার সময় উপস্থিত প্রত্যক্ষদর্শীদের অবশ্য ভিন্ন মত। দুজন প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছেন কেউ ধাক্কা বা ঠেলা মারেনি মুখ্যমন্ত্রীকে।

একজন প্রত্যক্ষদর্শী চিত্তরঞ্জন দাস বলেন, “এখানেই দাড়িয়েছিলাম। উনি হাতজোড় করে আসলেন। দরজা খুলেছিলেন। গেটের সামনে বসেছিলেন। পোষ্টের সামনে দরজা লাগে, সেটাই তাঁর পায়ে লেগেছে। কেউ ঠেলেনি, মারেওনি। তারপর বেড়িয়ে গেলেন।দরজার কাছে কেউ ছিল না।” এছাড়াও আরও এক প্রত্যক্ষদর্শী সৌমেন মাইতি বলেন, “ভিড় জড়ো হয়েছিল। কেউ ধাক্কা দেয়নি, গাড়ি ধীর গতিতে চলছিল। কোনো রাজনৈতিক দলের সঙ্গে জড়িত নই আমি ছাত্র।”

বর্তমানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এসএসকেএম এর উডবার্ন ওয়ার্ডের সাড়ে ১২ নম্বর কেবিনে ভর্তি আছেন। মুখ্যমন্ত্রীর এমআরআই করানো হয় বাঙ্গুর ইন্সটিটিউট অব নিউরোসায়েন্সে প্রাথমিক ভাবে জানা গেছে তৃণমূল নেতা তথা চিকিৎসক শান্তনু সেনের মারফত মুখ্যমন্ত্রীর লিগামেন্টে আঘাত আছে এছাড়াও তাঁর পায়ের পাতায় চিড় পাওয়া গেছে সাথে রয়েছে টিস্যুতে ইনজুরি।