‘নো ভোট টু বিজেপি’ পোস্টার দেখেই কফি হাইজে তাণ্ডব চালালো বিজেপির দুষ্কৃতীরা

0

কলকাতা : ভোটের বাজারে রাজনৈতিক স্লোগানের রমরমা। ‘খেলা হবে’ থেকে ‘মোদী পাড়া’ স্লোগানের দাপাদাপি রাজ্যজুড়ে। ‘দরকারে পাই তাই সরকারে চাই’ শব্দবন্ধও লোক টানছে রাজনৈতিক মিছিলে। এরই মধ্যে সবকিছুকে টক্কর দিয়েছে ‘নো ভোট টু বিজেপি’ বা ‘বিজেপি কে একটিও ভোট নয়’ স্লোগান। এই নিয়েই রাজনৈতিক মহলে জোর তরজা শুরু হয়েছে। এক অরাজনৈতিক মঞ্চ থেকেও উঠেছে এই স্লোগান। একে সমর্থন জানাতে এগিয়ে এসেছে রাজনৈতিক দলগুলি। মুখ্যমন্ত্রী খোদ নিজে এই ‘নো ভোট টু বিজেপি’র প্রচারকে সমর্থন জানিয়েছেন।

দিল্লী থেকে কৃষক নেতারা এসে মিছিল করে গিয়েছেন। করেছেন কলকাতা, নন্দীগ্রামে সভাও। ভোটের মুখে এই বিপরীত শক্তির উত্থানকে একেবারেই সহজ ভাবে নিচ্ছে না রাজ্যে বিজেপি। যা বিজেপির লাগামহীন দাপাদাপিকে আটকে দিয়েছে। শীর্ষ নেতৃত্বকেও ভাবাতে শুরু করেছে। যার প্রতিক্রিয়া মিলল সোমবার সন্ধ্যায় কফি হাইজে। যা ঘিরে উত্তাল হলো হলো কফি হাউস চত্বর। বিজেপি-ঘনিষ্ঠ একটি মঞ্চ ‘বিজেপি-আরএসএসের বিরুদ্ধে বাংলা’ বলে একটি মঞ্চের পোস্টার ছেঁড়েন বলে অভিযোগ। সেই পোস্টারে লেখা ছিল— বিজেপি-কে একটিও ভোট নয়। এমনকি ‘মোদী ঝড়’ স্লোগানও ওঠে। ‘নো ভোট টু বিজেপি’ লেখার ‘নো’ অংশটুকু মুছেও দেওয়া হয়। এই প্রসঙ্গে রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু বক্তব্য, কমিশনের বিনা অনুমতিতে যদি এই ধরনের বিজেপি বিরোধী পোস্টার লাগানো হয় তাহলে পোস্টার ছিঁড়ে বেশ করেছে ওই বিজেপি সমর্থকরা।

সায়ন্তন বসু বলেন, ‘‘ওই সব পোস্টার কারা ছাপিয়েছিল? তারা কি কমিশনের অনুমতি নিয়েছিল? তা না-হলে ছিঁড়েছে বেশ করেছে!’’ কিন্তু ঘটনা চলাকালীন, কফি হাউসের নিয়মিত মুখ কয়েক জন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, মোদীপাড়া কর্মসূচির আহ্বায়ক গেরুয়া গেঞ্জিধারী কয়েক জন এ দিন সেখান থেকে বেরোনোর সময়ে পোস্টার ছিঁড়ছিলেন। ‘নো ভোট টু বিজেপি’ লেখার ‘নো’ অংশটুকু মুছে দিচ্ছিলেন। ঠিক সেই সময়েই কয়েক জন বামকর্মী তরুণী রুখে দাঁড়ান। বিজেপি নেতা তেজিন্দর পাল সিংহ বাগ্গা কফি হাউসে তাঁদের স্লোগানের ভিডিয়ো টুইট করেন। বিজেপি-বিরোধীরাও ফেসবুকে পোস্টার ছেঁড়ার তাণ্ডবের ছবি ছড়িয়ে দিয়েছেন। তবে এখনও পর্যন্ত পুলিশে অভিযোগ জমা পড়েনি।