পুলওয়ামা আত্মঘাতী হামলায় লাভবান হয়েছেন মোদী, পরোক্ষভাবে মোদীকে তোপ রাহুলের

শ্রেয়া মাজী, নয়াদিল্লি: আজ সেই ১৪ ফেব্রুয়ারী। বিশ্বের কাছে এটি ভালবাসার দিন হলে ভারতের কাছে এটি রক্তাক্ত কালো দিন হিসাবে পরিচিত হয়েছে গত বছর থেকে। একবছর আগে এই ভালবাসার দিনেই ৪০ টি প্রাণ শেষ হয়ে গিয়েছিল। খালি হয়েছিল অনেক মায়ের কোল। পুলওয়ামাতে আত্মঘাতী হামলাতে শহিদ হয়েছিলেন ৪০ জন সিআরপিএফ জওয়ান। আত্মঘাতী হামলায় শহিদ বেশ কয়েকজন জওয়ানদের পরিবারকে দেওয়া প্রতিশ্রুতি এখনও পূরণ করতে পারেননি মোদী সরকার। শুক্রবার সেই শহীদদের উদ্দেশ্যে শ্রদ্ধাজ্ঞাপণের পাশাপাশি মোদী সরকারকে তোপ দাগলেন রাহুল গান্ধী।

মোদী সরকারের উপর ক্ষোভ প্রকাশ করে রাগা জানিয়েছেন, সঠিক নিরাপত্তা না থাকার কারণেই এক বছর আগে প্রাণ দিতে হয়েছিল ৪০ জওয়ানকে। এই নিয়ে শুক্রবার রাগা ট্যুইট করে লেখেন, “আজ আমরা পুলওয়ামা হামলায় শহিদ ৪০ জন জওয়ানের স্মৃতিতে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করছি। আজ কয়েকটি প্রশ্ন করা যাক। এই হামলায় সবচেয়ে বেশি লাভ কার হয়েছে? হামলার তদন্তের ফলাফল কী? নিরাপত্তার গাফিলতির জন্য যে হামলা হয়েছিল, তার জন্য বিজেপি সরকারের কাকে দায়ী করা হয়েছে?” মোদী সরকারের নিরাপত্তার গাফিলতির জন্যই বহু মায়ের কোল খালি হয়েছিল বলে রাগ উগড়ে দেন তিনি। পাশাপাশি তিনি আরও জানান যে ঘটনার সঠিক তদন্ত করেনি মোদী সরকার।

২০১৯-এর ১৪ ফেব্রুয়ারী রক্তাক্ত হয়েছিল ভারত মায়ের কোল। এদিনই পুলওয়ামাতে প্রায় ২৫০০ জওয়ানের কনভয়ে জইশ-ই-মহম্মদ সন্ত্রাসবাদী সংগঠনের আত্মঘাতী হামলা চালায়। তাতেই শহীদ হন ৪০ জন সিআরপিএফ জওয়ান। সেই ভয়াবহ ঘটনার এক বছর পূর্ণ হল আজ। তাঁদের প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপণ করে টুইট করেছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী, নরেন্দ্র মোদী, অমিত শাহ, রাজনাথ সিং সহ প্রমুখরা। ভারত মাতার জন্য প্রাণদানকারী শহিদদের প্রতি সম্মান জানিয়ে তাঁদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন অনেকেই। আজ দেশবাসী শহীদ জওয়ানদের প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ জানাচ্ছেন।