ঋতু চলছে কিনা পরীক্ষা করতে ছাত্রীদের অন্তর্বাস খোলালো কলেজ কর্তৃপক্ষ

0

গান্ধীনগর: ঋতু চলাকালীন মেয়েদের মন্দির-মসজিদে প্রবেশ নিষিদ্ধ তো ছিলই। এবার কলেজেও ঋতু না চলার প্রমাণ দিতে হল মেয়েদের। কলেজে ঢোকার আগে মেয়েদের জোর করে অন্তর্বাস খোলালো কলেজ কর্তৃপক্ষ। রোমহর্ষক এই ঘটনাটি ফের মনে করিয়ে দিল, আজও অশিক্ষার আঁধারে তলিয়ে আছে ভারতের একাংশ।

৬৮ জন মেয়ের এভাবে সম্মানহানির সাক্ষী থাকল গুজরাটের ভুজের শ্রী সাঝনন্দা গার্লস ইন্সটিটিউট। জানা গিয়েছে, ঋতু চলাকালীন আবাসিক কিছু মেয়ের মন্দির এবং রান্নাঘরে ঢোকাই হয় মস্ত অপরাধ। আর এই জন্যই কলেজে ঢোকার আগে অন্তর্বাস খুলিয়ে মেয়েদের পরীক্ষা করার নির্দেশ দেয় হোস্টেল কর্তৃপক্ষ।

আশ্চর্যের কথা এই যে এই কলেজের ছাত্রীদের শিক্ষার বিষয় হল আধুনিক, বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে জ্ঞান অর্জন করে নারীদের স্বাধীন হয়ে ওঠা। জানা গিয়েছে, ভুজের স্বামীনারায়ণ মন্দির ওই কলেজের ব্যয়ভার বহন করে। কলেজের BCom, BSc, এবং BA কোর্সে সেখানে প্রায় ১৫০০ ছাত্রী পড়াশুনো করে।

এক কলেজছাত্রী সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন যে ক্লাস চলাকালীন হঠাৎ তাঁদের বেরিয়ে আসতে বলা হয়। এরপর সবাইকে করিডোরে লাইন করে দাঁড় করান হয়। এরপর ঋতু চলছে কিনা সেই বিষয়ে তাঁদের জিজ্ঞেস করে অপমান করেন প্রধান শিক্ষিকা। তাঁদের মধ্যে দুজন ছাত্রীর ঋতু চলায় তাঁরা সরে দাঁড়িয়েছিলেন। তা সত্ত্বেও ক্লাসের সকলের অন্তর্বাস খুলিয়ে পরীক্ষা করা হয় বলে অভিযোগ। এখনও পর্যন্ত পুলিশে এই নিয়ে অভিযোগ দায়ের করা হয়নি বলে জানা গিয়েছে। প্রধান শিক্ষিকাকে এই নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, “বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে”।