বিজেপিতে যোগদানের পরই তুলে নেওয়া হল সিন্ধিয়ার বিরুদ্ধে জালিয়াতির মামলা

0

ভোপাল: কয়েকদিন আগেই কংগ্রেসের প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। তার পরেই মধ্যপ্রদেশের অর্থনৈতিক অপরাধ শাখা জ্যোতিরাদিত্য এবং তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে জালিয়াতির একটি মামলা তুলে নিল। জ্যোতিরাদিত্য ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে জমি বিক্রি করার সময় একটি সম্পত্তির দলিল জালিয়াতির অভিযোগ উঠেছিল।

বিজেপিতে প্রবেশের পরে জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়ার বিরুদ্ধে জালিয়াতি মামলা তুলে নেওয়া হল। কংগ্রেস থেকে তার পদত্যাগ মধ্যপ্রদেশের দলীয় শাখায় বিদ্রোহের সূত্রপাত ঘটায়। তার সাথেই আরও ২২ জন বিধায়কও পদত্যাগ করেছিলেন। এর ফলে গত সপ্তাহে কমল নাথের পদত্যাগ করার সঙ্গেই তার নেতৃত্বাধীন কংগ্রেস সরকার ভেঙে যায়। ১২ মার্চ যখন কংগ্রেস রাজ্যে ক্ষমতায় ছিল, তখন অর্থনৈতিক অপরাধ শাখা ২০০৯ সালে গোয়ালিয়রে একটি জমি বিক্রি করার সময় সিন্ধিয়া এবং তার পরিবারের বিরুদ্ধে জালিয়াতি করার অভিযোগের সত্যতা যাচাইয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল।

“অভিযোগকারী সুরেন্দ্র শ্রীবাস্তব ১২ মার্চ সিন্ধিয়াদের বিরুদ্ধে তার অভিযোগের পুনর্বিবেচনা চেয়ে আমাদের কাছে দ্বিতীয়বার যোগাযোগ করেছিলেন। আমরা অভিযোগটি আমাদের গোয়ালিয়র অফিসে প্রেরণ করেছিলাম, যা পুনরায় তদন্তের পরে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল”, এক শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তা এমনটাই জানিয়েছেন। আরও এক আধিকারিক জানিয়েছেন, ১২ মার্চ শ্রীবাস্তব সিন্ধিয়া এবং তার পরিবারের বিরুদ্ধে নতুন করে অভিযোগ দায়ের করেছেন।

সেখানে বলা হয় একটি রেজিস্ট্রি দলিল নকল করে তারা তাকে মহালগাঁওয়ে এক টুকরো জমি বিক্রি করেছিলেন, যা ২০০৯ সালে মূল চুক্তির চেয়ে ৬,০০০ বর্গফুট ছোট ছিল। তিনি প্রথমে ২৬ মার্চ ২০১৪ সালে এই অভিযোগ করেন। সিন্ধিয়া তখন কংগ্রেস নেতা ছিলেন। তবে ঘটনার তদন্ত করা হয়েছিল এবং ২০১৮ সালের মে মাসে তা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। বল বাহুল্য, তখন রাজ্যে বিজেপি ক্ষমতায় ছিল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here