ধ্বংসলীলা শুরু আমফানের, ওড়িশায় মৃত দুই

0

কটক: বুধবার দুপুরেই আছড়ে পড়ার কথা ছিল অত্যন্ত মারাত্মক ঘূর্ণিঝড় আমফানের। ঘূর্ণিঝড় আমফান ওড়িশার উত্তর উপকূলীয় জেলাগুলিতে ধ্বংসলীলা শুরু করে এবং এর ফলে মৃত্যু হয়েছে দুই জনের। আমফান কাঁচা ঘরগুলির ক্ষতি করার পাশাপাশি বেশ কয়েকটি গাছ ও বৈদ্যুতিক খুঁটিও উপড়ে ফেলেছে। কেন্দ্রপাড়ার সাতভায়ার এক ৫৭ বছর বয়সী মহিলা যিনি নিকটতম আশ্রয়স্থলে না গিয়ে বাড়িতে ফিরে এসেছেন বলে জানা গিয়েছে, এখনও অবধি দু’জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে।

যার মধ্যে একজন দুই মাস বয়সী একটি ছোটো ছেলে, সকালে দেওয়াল ভেঙে পড়ার পরে ছেলেটি মারা যায়। ঘটনাটি ঘটেছে ভদ্রক জেলার তিহিদি ব্লকের কামপাড়া গ্রামে। পারাদীপ, জগৎসিংহপুর এবং কটক জেলাতে গাছ উপড়ে পড়েছে। বুধবার সকাল থেকেই ওড়িশার কেন্দ্রপাড়া, জগৎসিংহপুর, ভদ্রক, বালাসোর ও ময়ূরভঞ্জ জেলাগুলিতে মুষলধারে বৃষ্টি ও ঝোড়ো হাওয়া শুরু হয়। উত্তর ওড়িশায় বায়ুর গতিবেগ ছিল ১০০ কিলোমিটার।

ওড়িশার রাজধানী ভুবনেশ্বরের আঞ্চলিক আবহাওয়া অফিস জগৎসিংহপুর, ধেঙ্কানাল, কটক, কেন্দ্রপাড়া, বালাসোর এবং ভদ্রক জেলার জন্য সতর্কতা জারি করেছে। এই জেলাগুলির কয়েকটি জায়গায় তীব্র বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। আবহাওয়াবিদ এই জেলার লোকদের বাড়ির অভ্যন্তরে থাকতে এবং সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসাবে ব্লিডিং এবং অন্যান্য নিরাপদ জায়গায় আশ্রয় নেওয়ার জন্য সতর্ক করেছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here