অর্থনীতি ছন্দে ফেরাতে কেন্দ্রের বড় সিদ্ধান্ত, করোনা পরিস্থিতিতে স্থগিত থাকছে সরকারি প্রকল্পের কাজ

0

নয়াদিল্লি: করোনার জেরে কেবল ভারতের অর্থনীতিই নয়, প্রায় সমগ্র বিশ্ব অর্থনীতি ব্যবস্থা যেন একাধারে স্থগিত হয়ে গিয়েছে। এর ফলে ভারতে রাজস্বের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে প্রচুর এবং সরকারের ব্যয়ও বেড়েছে, যা সরকারি প্রকল্পগুলিতে প্রভাব ফেলতে শুরু করেছে। এই পরিপ্রেক্ষিতে কেন্দ্রীয় সরকার নতুন নতুন প্রকল্প চালু করা বন্ধ করে দিয়েছে। এই বিষয়ে অর্থ মন্ত্রণালয় ২০২১ সালের মার্চ মাসের মধ্যে বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগ দ্বারা অনুমোদিত নতুন প্রকল্পগুলির কার্যক্রম বন্ধ রাখবে বলে জানা গিয়েছে। তবে স্বনির্ভর ভারত অভিযান প্যাকেজ এবং প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ যোজনায় কোনও বিধিনিষেধ থাকছে না।

সরকার স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে যে, পরবর্তী নির্দেশ না হওয়া পর্যন্ত বিভিন্ন মন্ত্রণালয় নতুন পরিকল্পনা শুরু করতে পারবে না এবং প্রধানমন্ত্রীর কল্যাণ যোজনা বা স্বনির্ভর ভারত অভিযানের আওতায় ঘোষিত প্রকল্পগুলির দিকে মনোনিবেশ করা হবে। সরবরাহ শৃঙ্খলা মেরামত করতে মোদী সরকার ২০ লক্ষ ৯৭ হাজার ৫৩ কোটি টাকার অর্থনৈতিক প্যাকেজ ঘোষণা করেছিল। অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ পরপর পাঁচদিন সাংবাদিক সম্মেলন করে সরকারের গৃহীত সকল গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপের বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য জানিয়েছিলেন।

যদিও সরকার সমাজের নিম্ন পর্যায়ে থাকা লোকদের সহায়তা দেওয়ার দাবি করেছে। অর্থনীতিকে আবার ছন্দে ফিরিয়ে আনতে সরকার কৃষক, পরিযায়ী শ্রমিক, কর্পোরেট সেক্টর ইত্যাদির জন্য প্রয়োজনীয় প্রতিটি পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। স্বনির্ভর ভারত প্যাকেজের আওতায় ঘোষিত অর্থের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর কল্যাণ যোজনা ১,৭০,০০০ কোটি টাকা। এই করোনা পরিস্থিতিতে অর্থ মন্ত্রকের আয় কম হচ্ছে। তাই সরকার এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। অ্যাকাউন্টস কন্ট্রোলার জেনারেলের প্রতিবেদন অনুসারে, ২০২০ সালের এপ্রিল মাসে সরকার ২৭,৫৪৪ কোটি টাকা আয় করেছে, যা বাজেট অনুমানের ১.২ শতাংশ ছিল।

যদিও সরকার ব্যয় করেছে ৩.০৭ লক্ষ কোটি টাকা, যা বাজেটের অনুমানের ১০ শতাংশ ছিল। প্রবৃদ্ধিকে উত্সাহিত করতে জনসাধারণের ব্যয় বৃদ্ধির দাবিতে ভারতীয় শিল্প সংঘটিত (সিআইআই) হুঁশিয়ারি দিয়েছে। সিআইআই বলেছে যে, আর্থিক ঘাটতি আরও বাড়ার সাথে সাথে দেশের রেটিং হ্রাস পেতে পারে। এর ফলে অর্থনীতিও অন্যান্য পরিণতির মুখোমুখি হতে পারে। সিআইআই ২০২০-২১-এর অ্যাজেন্ডা নথিতে চলতি অর্থ বছরের জন্য কোনও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির হার অনুমান করেনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here