বিজেপি ছাড়তে পারেন জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া; সোশ্যাল মিডিয়া প্রোফাইলে দিলেন ইঙ্গিত

0

নয়াদিল্লি: চলতি বছরের মার্চ মাসেই কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করেছিলেন জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। কিন্তু এবার তাঁর গেরুয়তা শিবিরও ত্যাগ করার জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছে। এই জল্পনার জন্ম তিনি নিজেই দিয়েছেন। নিজের ট্যুইটার প্রোফাইল থেকে ‘বিজেপি’-এর নাম সরিয়ে দিয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য, সামনেই মধ্যপ্রদেশের ২৪ তম বিধানসভা নির্বাচন। সেই নিয়ে ইতিমধ্যেই প্রস্তুতি তুঙ্গে। এই নির্বাচনে বিজেপি এবং কংগ্রেসের মধ্যে যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হতে চলেছে তা বলাই বাহুল্য। তার কয়েকমাস আগে আচমকা নিজের ট্যুইটার প্রোফাইল থেকে বিজেপি সরিয়ে দিয়ে মধ্যপ্রদেশের রাজনৈতিক জল্পনাকে আরও উস্কে দিয়েছেন সিন্ধিয়া।

বলা বাহুল্য, কংগ্রেস ছাড়ার আগেও এই ধরণের কার্যকলাপ করেছিলেন তিনি। নিজের ট্যুইটার প্রোফাইল থেকে কংগ্রেসের নাম সরিয়ে দিয়ে ‘জনসেবক’ রেখেছিলেন তিনি। এবার ফের নিজের প্রোফাইল থেকে বিজেপি সরিয়ে দিয়ে ‘জনসেবক’ রেখেছেন তিনি। যদিও এই বিষয়ে বিজেপির কিছু নেতা সাফাই দিয়ে বলেছেন, জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া কখনোই নিজের প্রোফাইলে বিজেপি রাখেননি। ওনার প্রোফাইলে ‘জনসেবক’ বলেই উল্লেখ করা ছিল।

তবে বিজেপি নেতাদের এই সাফাইয়ের পরেও মধ্যপ্রদেশের রাজনীতির ধোঁয়াশা কাটছে না। অন্যদিকে সূত্রের খবর, বিজেপিতে যোগদান করে খুশি নন সিন্ধিয়া। তাঁকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বানানোর প্রতিশ্রুতি দেওয়া হলেও এখনও পর্যন্ত এই বিষয়ে কোনোরকম ইঙ্গিত দেয়নি মোদী সরকার। পাশাপাশি, ওনার সমর্থনকারী ২২ জন বিধায়কের সঙ্গেও স্থানীয় বিজেপি নেতাদের বিরোধ শুরু হয়ে গিয়েছে। যার ফলে ওনার দু’জন সমর্থনকারী বিধায়ক শুক্রবার ফের কংগ্রেসে ফিরে গিয়েছেন।

সত্যেন্দ্র যাদব নামক ওই বিধায়ক সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, “মহারাজ (সিন্ধিয়া) বিজেপিতে যোগদান করে খুশি নন। উনিও খুব শীঘ্রই কংরেসে ফিরে আসবেন। সেইসঙ্গে সিন্ধিয়ার বাবা মাধবরাও সিন্ধিয়ায় বাল্যবন্ধু তথা গোয়ালিয়রের প্রাক্তন কংগ্রেস নেতা বলেন্দু শুক্লাও বিজেপি ছেড়ে কংরেসে ফিরে গিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here