বাংলা না, ফের নজির গড়ল কেরল সরকার; সব শ্রেণীর পড়ুয়াদের জন্য টিভির মাধ্যমে চালু হল পঠনপাঠন

0

তিরুঅনন্তপূরম: করোনা আতঙ্ক এবং লকডাউনের ফলে যাতে পড়ুয়াদের পঠনপাঠন শিকেয় না ওঠে তার জন্য দেশের বিভিন্ন রাজ্যে চালু হয়েছে অনলাইন ক্লাস। বেসরকারি স্কুল-কলেজের বিত্তশালী পরিবারের ছেলেমেয়েরা এই অনলাইন ক্লাসের সুবিধা পেলেও সিংহভাগ ছাত্রছাত্রীই এর থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। বর্তমানে অনলাইন ক্লাসের নামে কেবলমাত্র স্কুল-ফি উশুল করা হচ্ছে বলে অভিযোগ জানাচ্ছেন অভিভাবকেরাও।

কিন্তু সংক্রমণের হাত থেকে বাঁচানোর জন্য অনলাইন ক্লাস কতটা যুক্তিযুক্ত? সব শ্রেণীর পড়ুয়ারা এই সুবিধা পাবে কিভাবে? এইসব প্রশ্নের যথাযথ উত্তর বের করেছে কেরল সরকার। এবার পড়ুয়াদের পড়াশুনো করতে লাগবে না কোনও ইন্টারনেট। পঠনপাঠনের জন্য টেলিভিশনকে মাধ্যম হিসেবে বেছে নিয়েছে সরকার।

১৫ জুন থেকে কেরলে শুরু হয়েছে ‘ফার্স্ট বেল’ নামক ডিজিট্যাল ক্লাস। একাদশ শ্রেণী বাদে প্রথম থেকে দ্বাদশ শ্রেণীর ক্লাস হবে সকাল সাড়ে ৮ টা থেকে বিকেল সাড়ে ৫ টা পর্যন্ত। ইংরেজি এবং মালয়ালম দুটি ভাষাতেই শিক্ষক শিক্ষিকারা পড়াবেন। ছাত্রছাত্রীরা লাইভ সেই ক্লাস দেখতে পারে অথবা ডাউনলোড করে পরেও দেখে নিতে পারে।

জানা গিয়েছে, ভার্চুয়াল ক্লাস করানোর জন্য কেরলের স্কুলগুলিতে মোট ১ লক্ষ ২০ হাজার ল্যাপটপ এবং ৪ হাজার ৪৫০ টি টেলিভিশন সেট দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে, প্রান্তিক অঞ্চলের পড়ুয়াদের বলা হয়েছে তাঁরা যেন গ্রামের লাইব্রেরী অথবা অক্ষয় সেন্টারে গিয়ে ভার্চুয়াল ক্লাস করেন।