“ভগবান রামই আমাদের দেশের মূল চালিকা শক্তি, সকলের মধ্যেই রামলালা বিরাজমান”, প্রধানমন্ত্রী মোদী

0

অরিত্রা দাশগুপ্ত, অযোধ্যা: সম্পূর্ণ হল বহুপ্রতীক্ষিত অযোধ্যায় রাম মন্দিরের শিলান্যাস অনুষ্ঠান। শিলান্যাস করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ঠিক ১২ টা বেজে ৪৪ মিনিট ৮ সেকেন্ডের ব্রাহ্মমুহূর্তে ৪০ কেজির রুপোর ইট প্রতিস্থাপন করে মন্দিরের মূল পর্বের সূচনা করেন নরেন্দ্র মোদী। এরপর জাতির উদ্দেশ্যে এবং রাম মন্দির উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আমার অত্যন্ত সৌভাগ্য যে রাম জন্মভূমি ট্রাস্ট এই ঐতিহাসিক মুহূর্তের সাক্ষী হওয়ার জন্য আমাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে। রাম সকলেরই। আমাদের সকলের মধ্যেই রামলালা বিরাজমান।”

ভারতের অখন্ডতা, শান্তি, মৈত্রী এবং ন্যায় বিচারের আদর্শ তুলে ধরে মোদি বলেন,” আজকের দিন দেশের কোটি কোটি ভক্তের কাছে আনন্দের মুহূর্ত। আজকের দিন ভারতের সব মানুষের কাছে সত্য ও অহিংসা, বিশ্বাস এবং ত্যাগের সম্মিলিত উপহার।সেই সঙ্গে করোনা পরিস্থিতিতে মন্দিরের ভূমি পূজা এর নানান সীমাবদ্ধতার কথা মনে করিয়ে মোদী বলেন, “আজকের ভূমি পূজা অনুষ্ঠান নানান সতর্কতার মধ্য দিয়ে করতে হয়েছে। সারা পৃথিবীর কাছে এই অনুষ্ঠানটি একটি নজির তৈরি করল। গত বছরের সুপ্রিম কোর্টের আদেশ পাওয়ার পর এই রাম মন্দির তৈরীর কাজ শুরু হয়।”

অযোধ্যা কে বিশ্বের দরবারে নতুন করে উপস্থাপনা করার উদ্দেশ্যে মোদি বলেন, “মন্দির নির্মাণ কেবলমাত্র অযোধ্যার সৌন্দর্য বৃদ্ধি করবে না, অযোধ্যার সম্পূর্ণ পরিবেশ-পরিস্থিতি কে আমূল বদলে ফেলবে। সারা পৃথিবীর মানুষ অযোধ্যায় রাম দর্শনের উদ্দেশ্যে একত্রিত হবেন তাদের পদধূলিতে ধন্য হবে রাম জন্মভূমি।” ভারতের সর্ব ধর্ম সমন্বয় ঐতিহ্যের কথা বলতে গিয়ে মোদী বলেন, “রাম মন্দির ভারতের ঐতিহ্য বিশ্বাসের প্রতীক। রাম ঠিক যেভাবে তার রাজ্যশাসন কালে সুন্দর প্রশাসনিক দক্ষতার মাধ্যমে বিভিন্ন মানুষের সুখ-দুঃখের পরিস্থিতি সামলেছেন আজকের ভারত বর্ষ ঠিক একইভাবে সেই পথেই চলবে।”

ভারতের অখন্ডতার ইতিহাসে রামের ভূমিকা ব্যাখ্যা করতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আমাদের জীবনে এমন কোন মুহূর্ত নেই যেখানে আমরা রামের থেকে অনুপ্রাণিত হতে পারি না। আমাদের জাতীয় আবেগে এমন কোনো মুহূর্ত নেই যা রামের মূল্যবোধকে প্রতিফলিত করে না। ভারতের বিশ্বাস ভগবান রামের বিশ্বাস। ভারতের আদর্শ অখন্ডতা রামের আদর্শেই নির্মিত। ভবিষ্যতে যে আমাদের দেশে পরিভ্রমণে আসবে তিনি ভারতের সর্বত্র রামের উপস্থিতিকে অনুধাবন করতে পারবেন আমাদের সকলের মধ্যে দিয়েই রাম বেঁচে থাকবেন।।”