করোনা, অর্থনৈতিক সঙ্কটের মধ্যেও মোদীকেই পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসাবে দেখতে চান দেশের অধিকাংশ মানুষ: সমীক্ষা

0

নয়াদিল্লি: দেশে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা। সামাল দিতে হিমশিম খাচ্ছে মোদী সরকার। ভারতে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধির জন্য সমস্ত বিরোধী দলই নরেন্দ্র মোদীর নীতিকে কাঠগোড়ায় দাঁড় করিয়েছে। এমনকি প্রায় প্রতি দিনই করোনাকে সামআল দিতে না পারার জন্য কেন্দ্রকে কটাক্ষ করে চলেছে কেন্দ্র বিরোধীদলগুলি। তবে এতো কিছুর পরেও ভারতের প্রধানমন্ত্রীর জনপ্রিয়তা কমেনি বরং দিনে দিনে বাড়ছে। এমনটাই জানাচ্ছে সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের সমীক্ষা।

সমীক্ষা বলছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে এগিয়ে চলুক দেশ এমনটাই চাইছেন দেশের বেশিভাগ মানুষ। দেশ করোনার সম্মুখীন হওয়ার পরেই ‘আত্মনির্ভর ভারত’ গড়ার ডাক দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তারপরেই দেশের ৬৬ শতাংশ মানুষ মনে করছেন মোদির নেতৃত্বেই যাবতীয় প্রতিকূলতা কাটিয়ে ভারত আত্মনির্ভর হয়ে উঠতে পারবে। ২০২০ সালের জানুয়ারির সমীক্ষায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসাবে সবচেয়ে জনপ্রিয় বলে নির্বাচিত করা হয়েছিল। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং রাহুল গান্ধীর মধ্যে তত্কালীন প্রধানমন্ত্রীর পদে ৪০ শতাংশ পয়েন্টের ব্যবধান ছিল। তবে অনেক ব্যবধান থাকলেও মোদীর পর ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসাবে নাম রয়েছে রাহুল গান্ধীর।

সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে ৫৩ শতাংশ লোক নরেন্দ্র মোদীকে পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসাবে দেখতে চেয়েছেন অন্যদিকে মাত্র ১৩ শতাংশ মানুষ বলেছেন যে রাহুল গান্ধী দেশকে নেতৃত্ব দেওয়ার পক্ষে সবচেয়ে উপযুক্ত। তবে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নীতিন গডকরি, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে, বহুজন সমাজ পার্টির প্রধান মায়াবতী, সমাজবাদী পার্টির প্রধান অখিলেশ যাদববের মতো এমন কয়েকজনের নাম রয়েছে পরবর্তী প্রধানমন্ত্রীর পদপ্রার্থী হিসাবে।

তবে জানুয়ারী ২০১৯ সালে রাহুল গান্ধীকে প্রধানমন্ত্রীর পদে দেখার জন্য বিরোধী নেতাদের মধ্যে সবচেয়ে উপযুক্ত প্রার্থী হিসাবে সর্বাধিক ৫২ শতাংশ ভোট দেওয়া হয়েছিল। বলা বাহুল্য যে, বর্তমানে লাদাখে চিনা আগ্রাসন, করোনা সঙ্কট, অর্থনৈতিক সঙ্কট এবং বারবার বিরোধীদের আক্রমণের মুখে পড়ার পরেও মোদীর জনপ্রিয়তা কমেনি উল্টে সমীক্ষা বলছে সাধারণ মানুষ চাইছে দেশের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে যোগ্য একমাত্র নরেন্দ্র মোদীই।