পুলওয়ামার মামলায় ১৩৫০০ পৃষ্ঠার চার্জশিট, পাকিস্তানি সন্ত্রাসীদের ষড়যন্ত্র প্রকাশ করল NIA

0

নয়াদিল্লি : জাতীয় তদন্ত সংস্থা (এনআইএ) পুলওয়ামা সন্ত্রাসী হামলা মামলায় অভিযোগপত্র দাখিল করেছে। এই চার্জশিটটি ১৩৫০০ পৃষ্ঠার। এনআইএ অভিযোগপত্রে ১৩ জনকে আসামি করেছে। এর মধ্যে জইশ-ই-মহম্মদ নেতা মৌলানা মাসুদ আজহারও অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। আত্মঘাতী সন্ত্রাসী আদিল ডার যে এই হামলা চালিয়েছিল সে নিজেই এই বিস্ফোরণে নিহত হয়।

জম্মু ও কাশ্মীরের পুলওয়ামায় ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৯-এ সিআরপিএফের কনভয়ে আক্রমণ করা হয়েছিল। একটি আত্মঘাতী বোমা হামলাকারী সিআরপিএফের কনভয়ের একটি গাড়িতে বিস্ফোরক ভর্তি একটি গাড়ি ধাক্কা মারে। এই বিস্ফোরণে ৪০ জন সেনা নিহত হন। এরপর থেকেই এনআইএ বিষয়টি তদন্ত করছিল। এখন এনআইএ ১৩৫০০ পৃষ্ঠার চার্জশিট দায়ের করেছে।

IED তৈরির সময় ওমর ফারুক, সমীর ডার ও আদিল ডার

আদিল আহমেদ ডার নামে এক আত্মঘাতী সন্ত্রাসী এই সন্ত্রাসী হামলা চালিয়েছিল। যে নিহত হয়েছে। আদিলের সাথে এই হামলার জন্য আইইডি তৈরি করা উমর ফারুকও মারা গেছে। তৃতীয় ব্যক্তি সমীরকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। এনআইএ তার চার্জশিটে এমন লোকদেরও অভিযুক্ত করেছে যারা আদিলের সাহায্যকারী ছিল। এছাড়াও পাকিস্তানে বসে থাকা সন্ত্রাসীদের কর্তাদেরও চার্জশিটে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

জইশ-ই-মহম্মদের নেতা মৌলানা মাসুদ আজহারকে এনআইএ তাদের চার্জশিটে প্রথম অভিযুক্ত বলে চিহ্নিত করেছে। মাসুদ ছাড়াও তার ভাই আবদুল রাউফ ও মৌলানা আম্মারকেও অভিযুক্ত করা হয়েছে। মৌলানা আম্মার বালকোটে জইশ সন্ত্রাসীদের প্রশিক্ষণ দেয়।

পুলওয়ামায় আক্রমণ চালানো আদিল ডারের অনেক সাহায্যকারী ছিল, এনআইএও এই জাতীয় লোককে অভিযুক্ত করেছে। এর মধ্যে মহম্মদ আব্বাস রাথর, বিলাল আহমেদ কুচে, সাকির বশির ওরফে হুজেফা, ইনশা জান ওরফে ইনশা তারিক, পীর তারিক আহমেদ শাহ, আশ্ক আহমেদ নেঙ্গারু, ইকবাল রাথর, সমীর আহমেদ ডার এবং ভেইজ-উল ইসলামের বিরুদ্ধেও অভিযোগ আনা হয়েছে। শাকির হামলার জন্য গাড়ি, বিস্ফোরক এবং আইইডি সরবরাহ করেছিল। আব্বাস রাথর অনলাইন শপিংয়ের মাধ্যমে হামলায় সাহায্য করেছিল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here