ড্রাগনের সামনে চীনা গুপ্তচরবৃত্তির বিষয় উত্থাপন করেছে ভারতের, চিঠির মাধ্যমে জবাব বিদেশমন্ত্রীর

0

নয়াদিল্লি: বুধবার নয়াদিল্লিতে নিযুক্ত চীনা রাষ্ট্রদূতের কাছে সরকার কিছু ভারতীয় নেতার গুপ্তচরবৃত্তির রিপোর্টের বিষয়টি উত্থাপন করেছে। কংগ্রেস নেতা কেসি ভেনুগোপালকে একটি চিঠিতে বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর এই তথ্য দিয়েছেন। চিঠিতে বলা হয়েছে, বিষয়টি চীনের বিদেশমন্ত্রকের কাছেও পেশ করা হয়েছে।

এস জয়শঙ্কর ভেনুগোপালকে বলেছেন, “বিদেশ মন্ত্রক আজ এই বিষয়টি চীনা রাষ্ট্রদূতের কাছে তুলে ধরেছে। বেজিংয়ে আমাদের দূতাবাসও চীনের বিদেশ মন্ত্রকের সামনে এটি উত্থাপন করেছিল। চীনা পক্ষ বলেছে যে শেনজেন জেনহুয়া একটি বেসরকারী সংস্থা। চীনের বিদেশ মন্ত্রক বলেছে যে সংশ্লিষ্ট সংস্থা এবং চীন সরকারের মধ্যে কোনও সম্পর্ক নেই।” জিরো আওয়ারের সময় ভেনুগোপাল রাজ্যসভায় বিষয়টি উত্থাপন করার পরে জয়শঙ্করের এই বক্তব্য এসেছে।

জয়শঙ্কর চিঠিতে বলেছেন যে, “শেনজেন জেনহুয়ার একটি প্রতিনিধি জানিয়েছেন তথ্যগুলি ওপেন সোর্স থেকে নেওয়া হয়েছিল।” মন্ত্রী বলেন, সংস্থাটি গোপনীয় উত্স থেকে ব্যক্তিগত তথ্য প্রাপ্তি অস্বীকার করেছে। জানা গিয়েছে চীনের রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, প্রধানমন্ত্রী মোদী সহ ভারতের ১০ হাজারেরও বেশি সেলিব্রিটি এবং সংস্থার গুপ্তচরবৃত্তির বিষয়ে বুধবার কেন্দ্রীয় সরকার একটি কমিটি গঠন করেছে। এই কমিটি এক মাসের মধ্যে রিপোর্ট জমা করবে।