স্বমহিমায় ভারতীয় সেনা: এলএসি তে ২০ দিনে ছয় পর্বতশৃঙ্গ নিজেদের দখল নিল সেনা

0

লাদাখ: লাদাখ সীমান্তে অচলাবস্থা কাটেনি এখনও। ভারতের জমি দখল নিয়ে চিনের সঙ্গে ভারতের বিবাদ চরম পর্যায়ে। তবে ভারতও যে সূচাগ্র মেদিনী চিনকে ছারবে না স্তা খুব ভালো করেই বুঝিয়ে দিয়েছে। সংবাদ সংস্থা এআনআই সূত্রে খবর গত ২০ দিনে ভারতীয় সেনা প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখার কাছে ৬টি শৃঙ্গের দখল করেছে। যেগুলিকে চিন দখল করার চেষ্টায় ছিল। ভারতীয় সেনার এই লাদাখে পর্বতশৃঙ্গ দখল চিনা আগ্রাসনকে অনেকটাই রুখে দেবে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

সংবাদ সংস্থার পক্ষ থেকে জান্নাও হয়েছে ভারতীয় সেনা প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখার কাছে মাগার হিল, গুরুং হিল, রেজাং লা, রেচিন লা, মোখপারি ও গুরুত্বপূর্ণ একটি শৃঙ্গ নিজেদেদের দখলে নিয়েছে। এইদিন পর্যন্ত এই অঞ্চলগুলি ফাঁকাই ছিল। এই পাহাড়চূড়ো গুলি চিনের সেনাবাহিনীও দখল করার চেষ্টা করেছিল বলে সূত্রের খবর৷ দখল করতে চাওয়ার কারণেই প্যাংগং লেকের উত্তর থেকে দক্ষিণ অংশের মধ্যে অন্তত তিনটি ক্ষেত্রে শূন্যে গুলি চালানোর মতো ঘটনা ঘটেছিল। তবে এবার চিনের এই আগ্রাসনকে প্রতিহত করেছে ভারতীয় সেনা ছয়টি শৃঙ্গ নিজেদের দখলে নিয়ে।

সূত্রের খবর এই অঞ্চলগুলি দখল করে চিনের লাল ফৌজ ভারতীয় সেনার গতিবিধির উপরে সহজেইনজরদারি চালাতে পারত। কিন্তু সেটা আর হতে দেওয়নি ভারতীয় সেনা। কৃত নিয়ন্ত্রণ রেখার কাছে ৬টি শৃঙ্গের দখল করার ফলে অনেকটাই চিনকে চাপে ফেলা যাবে বলে মনে করছেন ওয়াকিবহল মহল। ভারতীয় সেনা এই পাহাড় চূড়োগুলি দখল করার পরেই চিন রেজাং লা এবং রেচেন লা-র কাছাকাছি তিন হাজার অতিরিক্ত সশস্ত্র বাহিনী মোতায়েন করেছে।

তবে বিশ্লেষকদের মতে প্যাংগং হ্রদের দক্ষিণ থেকে উত্তরের এই ছ’টি শৃঙ্গ জয়ের ফলে ভারত অনেকটাই সুবিধাজনক অবস্থায় রয়েছে ও চিনকে চাপে ফেলেছে। তবে সিমান্তে যাই হোক না কেন সবটাই হচ্ছে জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল, তিন বাহিনীর প্রধান বিপিন রাওয়াত এবং সেনাপ্রধান এম এম নারভানের পরামর্শ মেনে।