কাশ্মীরে সন্ত্রাসী অনুপ্রবেশ এবং অস্ত্র সম্পর্কিত কৌশল বদলাতে ISI-কে সহায়তা করছে চীন

0

নয়াদিল্লি: চীনের সহায়তায় পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই কাশ্মীরে নিজেদের কৌশল বদল করেছে। আইএসএআই সন্ত্রাসীদের খালি হাতে অনুপ্রবেশ করাচ্ছে এবং ড্রোন দিয়ে অস্ত্র সরবরাহ করছে। জানা গেছে যে, চীন থেকে তারা প্রচুর ড্রোন ও ইএমইআই রাইফেল পাচ্ছে।

গোয়েন্দা সূত্রে প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী, এই মাসেই কাশ্মীরে বেশ কয়েকটি জায়গায় চীনের তৈরি অস্ত্রশস্ত্র নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে এসেছে। এগুলি চীনের নরিনকো সংস্থা দ্বারা নির্মিত ইএমইআই টাইপ ৯৭ এনএসআর রাইফেল। এই রাইফেলগুলি ২৩-২৪ তারিখ রাতে বুজম্মু থেকে দক্ষিণ কাশ্মীর যাওয়া দু’জনের কাছে ধরা পড়ে। এর আগে ১৪ সেপ্টেম্বর উত্তর কাশ্মীরের গুরেজ সেক্টরে নরিনকোর কিউবিজেড টাইপ ৯৫ এনএসআর রাইফেলগুলি আটক করা হয়।

গোয়েন্দা সূত্র জানায়, নরিনকো কোম্পানির টাইপ ৯৭ এনএসআর রাইফেলগুলি চীনা সেনাবাহিনীর পিএলএ-তে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয়। এটা স্পষ্ট যে চীনা সেনাবাহিনীর মাধ্যমে এই রাইফেলগুলি সেখান থেকে আইএসআই এবং সন্ত্রাসীদের হাতে পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে।

সূত্র জানিয়েছে, ভারতীয় সেনাবাহিনীর কার্যকারিতা বিশ্লেষণের পরে আইএসআই সন্ত্রাসীদের খালি হাতে পাঠানো শুরু করে। আসলে যখন কোনও ব্যক্তি খালি হাতে ভারতীয় এলএসি-তে প্রবেশ করে তখন সুরক্ষা বাহিনী গুলি চালায় না। এভাবে তাদের পালানোর সম্ভাবনা তৈরি হয়।

সূত্র মতে, সুরক্ষা বাহিনীর কঠোরতার কারণে আইএসআই খালি হাতে সন্ত্রাসীদের অনুপ্রবেশ করাচ্ছে। যদিও সুরক্ষা বাহিনীও এ জাতীয় লোকদের ব্যাপক তদন্ত করে, তবে হতে পারে কেউ কেউ নজরে না পড়ে ঢুকে পড়েছে। এরপরে তারা ড্রোন দিয়ে অস্ত্র সরবরাহ করে। এখানে ভারতীয় সেনাবাহিনী এবং অন্যান্য সুরক্ষা বাহিনীও ড্রোন সম্পর্কে নজরদারি বাড়িয়েছে। জানা যাচ্ছে, চীন পাকিস্তানকে সরবরাহকারী বড় আকারের ড্রোন দিয়েছে।