হাথরাসে এবার ইউপি পুলিশের শিকার তৃণমূল সাংসদরা, পুলিশের মার খেয়ে রাস্তার পড়ে গেলেন ডেরেক ও’ব্রায়েন

0

লখনউ: হাথরাস গণধর্ষণকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ক্রমশ তীব্র হয়ে উঠছে। অনেক বিরোধী দল এই মামলায় উত্তরপ্রদেশ সরকার এবং ইউপি পুলিশের মনোভাব নিয়ে প্রশ্ন তুলছে। এদিকে শুক্রবার মৃতেরর পরিবারের সাথে দেখা করতে যাওয়া তৃণমূলের কিছু সাংসদ সদস্যকে ইউপি পুলিশ আটকেদিয়েছে। এর মধ্যে ছিলেন তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ওব্রায়েন, যিনি নীচে পড়ে যান। তৃণমূল একটি বিবৃতি জারি করেছে যে, তাদের কিছু সাংসদ সদস্যকে ইউপি পুলিশ ধর্ষিতার গ্রামের দেড় কিলোমিটার আগে আটকে দিয়েছে। এই সাংসদ সদস্যরা আলাদাভাবে যাচ্ছিলেন। তৃণমূলের এই সাংসদ সদস্যরা ২০০ কিলোমিটার দূর দিল্লি থেকে এসেছিলেন।

এর মধ্যে রয়েছে ডেরেক ওব্রায়ান, কাকলি ঘোষ দস্তিদার, প্রতিমা মন্ডল এবং প্রাক্তন সাংসদ মমতা ঠাকুর। এই নেতারা দিল্লি থেকে হাথারাসের ধর্ষিতার পরিবারের সাথে দেখা করতে যাচ্ছিলেন। যে সাংসদ সদস্যদের থামানো হয়েছিল তাদের মধ্যে একজন বলেছেন, “আমরা শান্তিতে হাথরাসের দিকে এগিয়ে যাচ্ছিলাম মৃতার পরিবারের সাথে দেখা করতে এবং সমবেদনা জানাতে। আমরা আলাদাভাবে ভ্রমণ করছি এবং সমস্ত প্রোটোকল অনুসরণ করছি। আমরা কোনও অস্ত্র গ্রহণ করিনি। আমাদের কেন থামানো হচ্ছে? ‘জঙ্গল রাজ’ কীভাবে নির্বাচিত সাংসদ সদস্যদের এখানে কোনও মৃতার পরিবারের সাথে দেখা করতে দেওয়া হচ্ছে না? এখনও আমরা আক্রান্তের বাড়ি থেকে মাত্র ১.৫ কিলোমিটার দূরে। আমরা পুলিশ কর্মকর্তাদের বুঝিয়ে দিচ্ছি যে আমরাও এই দূরত্ব পায়ে হেঁটে যেতে পারি।”

এই ঘটনার কিছু ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ পেয়েছে, যেখানে তৃণমূলের সাংসদ সদস্যদের পুলিশ কর্মকর্তাদের বোঝানোর চেষ্টা করতে দেখা যায়। হাথরাসের ১৯ বছরের তরুণীকে গণধর্ষণ করে খুনের ঘটনা নিয়েই এখন উত্তাল হয়ে রয়ে রয়েছে গোটা দেশ সহ উত্তরপ্রদেশ। এই ঘটনার পর কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী ও কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বঢ়রা নির্যাতিতার পরিবারের সঙ্গে দেখা করার উদ্দেশ্যে বৃহস্পতিবার রওনা দিয়েছিলেন। কিন্তু উত্তরপ্রদেশ সরকার জারি করেছিল ১৪৪ ধারা। এবার উত্তর প্রদেশ পুলিশ ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করার অপরাধে রাহুল গান্ধী ও প্রিয়াঙ্কা গান্ধী সহ ২০৩ জন কংগ্রেস নেতা নেত্রীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে। উত্তরপ্রদেশ পুলিশ অভিযোগ করেছে আইন অমান্য করেছেন কংগ্রেস নেতারা। রাহুল ও প্রিয়ঙ্কার বিরুদ্ধে ৩৩২ ধারা, ৩৫৩ ধরা, ৪২৭ ও ৩৫৪, ১৪৭, ১৪৮ সহ একাধিক ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here