“মমতা ইসলামিক জঙ্গি, নির্বাচনের পর তাঁর আশ্রয় হবে বাংলাদেশে” বিতর্কিত মন্তব্য বিজেপি মন্ত্রীর

0

লখনউ: বাংলায় বিধানসভা নির্বাচনের বাকি আর মাত্র হাতে গোনা কয়েকটা দিন। যদি ২১-এর নির্বাচনের দিন আগিয়ে আসছে ততই বঙ্গে রাজনৈতিক প্রতিযোগিতা বাড়ছে। বঙ্গ দখল করার মরিয়া প্রয়াস চালাচ্ছে বিজেপি। তাই শাসক দলকে ব্যকফুটে ফেলতে সুযোগ পেলেই বিজেপি কড়া ভাষায় আক্রমণ করছে। এমনকি বিজেপি শাসিত অন্য রাজ্যের নেতারাও আক্রমণ করছেন। রবিবার উত্তরপ্রদেশের পরিষদীয় দপ্তরের প্রতিমন্ত্রী আনন্দ স্বরূপ শুক্লা পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ইসলামী সন্ত্রাসী হিসাবে অভিহিত করেছেন এবং বলেছেন যে তার রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনের পরে তাকে বাংলাদেশে আশ্রয় নিতে হবে।

উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী আনন্দ স্বরূপ শুক্লা বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে আক্রমণ শানিয়ে বলেছেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পুরোপুরি বাংলাদেশিতে পরিণত হয়েছেন এবং ইসলামিক সন্ত্রাসবাদীদের নির্দেশ অনুযায়ী কাজ করছেন। দেশের কাছে তিনিই সবথেকে বড় বিপদ। পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনে পরাজিত হওয়ার পরেই তিনি বাংলাদেশে শরণার্থী হিসেবে আশ্রয় নেবেন।” আনন্দ স্বরূপ শুক্লা আরও বলেন, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী “ভারতীয়তা (ভারতীয়ত্ব) বিশ্বাস করেন না” এবং হিন্দু দেবদেবীদের অপমান করেছেন বলে অভিযোগ তুলেছিলে।

স্বরূপ শুক্লা মমতাকে কটাক্ষ করে বলেন, “তিনি একজন ইসলামী সন্ত্রাসী। তিনি পশ্চিমবঙ্গে মন্দিরগুলি ভেঙে দেবী-দেবদেবীদের অবমাননার কাজ করেছেন। তিনি বাংলাদেশের নির্দেশে অভিনয় করছেন” বলেই কটাক্ষ করেন তিনি। উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী বলেন, যে মুসলিমারা যেখানে “ভারত মাতা কি জয়” এবং “বন্দে মাতরম” বলে দেশকে সম্মানিত করছে সেখানে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ইসলামিক জঙ্গিদের সমর্থন করছেন।