আজকের দিনে: স্বপ্নভঙ্গের লর্ডস দেখেছিল আর এক বাঙালির ‘দিদিগিরি’

0

নয়াদিল্লি : স্বপ্নের অনেক কাছে এসেও স্বপ্নভঙ্গ, হ্যাঁ ২০১৭ সাল আজকের দিনে লর্ডসের ঐতিহাসিক মাঠে মহিলাদের বিশ্বকাপ ফাইনালে এমনটাই হয়েছিল। ইংল্যান্ড এবং ভারতীয় মহিলা দলের মধ্যে আকর্ষণীয় এক ফাইনাল ম্যাচ, ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীরা মুখিয়ে ছিল মহিলা দলের বিশ্বজয় দেখার জন্য। কিন্তু শেষমেশ বিশ্রী ভাবে চোক করে যায় ঝুলন-মিতালীরা। ভারতীয় মহিলারা লড়াই করে গিয়েছিল এবং কিন্তু ভাগ্য সাথ না দেওয়ায় ইংল্যান্ডের জয় হল। ২২৯ রান তাড়া করতে নেমে ভারত ১৯১-৪ স্কোর থেকেও মাত্র ৯ রানে হেরে যায় ম্যাচ।

এই ফাইনাল ম্যাচে ইংল্যান্ডের অধিনায়ক হিথার নাইট টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল এবং বিশ্বকাপ জয়ের জন্য ভারতীয় দলকে ২২৯ রানের লক্ষ্য দিয়েছিল, কিন্তু জবাবে ভারত মাত্র ২১৯ রান শেষ হয়ে যায়। ইংল্যান্ড এই ম্যাচে ধীর গতিতে ব্যাটিং শুরু করে তবে তাদের ইনিংস কিছুটা জোর অর্জন করেছিল সারা টেলর (৪৫) এবং নাটালি সিউয়ারের (৫১) মধ্যে ৮৩ রানের গুরুত্বপূর্ণ পার্টনারশিপের কারণে।

এর পরে লর্ডস দেখেছিল আরও এক বাঙালির দাপট। ভারতীয় বোলার ঝুলন গোস্বামী একের পর এক তিন ইংলিশ ব্যাটসম্যানকে প্যাভিলিয়নে ফেরত পাঠিয়েছিলেন।১০ ওভার বল করে মাত্র ২৩ রান দিয়ে তিন উইকেট নেন তিনি।

ঝুলনের দুর্দান্ত বোলিং সত্ত্বেও ভারতীয় দল ব্যাটিং ব্যর্থতার কারণে ম্যাচ হেরে বসে। লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে ভারতীয় দল খুব ভাল শুরু করতে পারেনি এবং দল তাদের দুই গুরুত্বপূর্ণ উইকেট শীঘ্রই হারায়। কিন্তু তৃতীয় উইকেটে পুনম রাউত ও হরমনপ্রীত কৌরের পার্টনারশিপ দলকে এগিয়ে দেয়। কিন্তু শেষরক্ষা আর হল না।

তবে এটাই প্রথম বিশ্বকাপ ফাইনাল নয় যেখানে ভারতীয় মহিলা দল হারল। ২০০৫ সালে ভারত অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধেও পরাজয়ের মুখোমুখি হয়েছিল। তবে ভারতীয় মহিলারা চোখের জলে বিশ্বকাপ রানার্স আপ হলেও ভারতীয়রা সেদিন দলের পারফরম্যান্স নিয়ে বেশ গর্বিত ছিল, আজও গর্বিত এবং সর্বদা থাকবে। ট্রফি হয়তো সময়ের অপেক্ষা। এই ফাইনাল ভারতীয় মহিলা ক্রিকেটকে অন্য মাত্রায় তুলে নিয়ে গিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here