মুখ্যমন্ত্রীর সৌজন্যের কাছে হার মানল কেন্দ্র

কলকাতা: গত মাসেই পশ্চিমবঙ্গে এসেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কেন্দ্র-রাজ্য সংঘাতের মাঝেও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সেদিন রাজভবনে গিয়ে দেখা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে। শুধু তাই নয়, কলকাতা বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে অভ্যর্থনা জানানোর জন্য মেয়র ফিরহাদ হাকিমকেও পাঠিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী।
সিএএ নিয়ে দেশজোড়া বিক্ষোভের মাঝে কলকাতাও পথে নেমে কালো পতাকা দেখিয়ে গো ব্যাক স্লোগান দিয়েছিল প্রধানমন্ত্রীকে। সবকটি রাজনৈতিক দল সেদিন প্রশ্ন তুলেছিল মুখ্যমন্ত্রীর এই সৌজন্য সাক্ষাৎ নিয়ে।

অথচ আজ কলকাতার ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ডাকা হল না পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীকে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ডাকা হয়নি বলেই তৃণমূলের যে সাংসদ ও বিধায়করা আমন্ত্রণ পেয়েছিলেন, তারাও এদিন এই অনুষ্ঠান বয়কট করেছেন।

আমন্ত্রণ পেয়েও তৃণমূলের সুজিত বসু এবং কাকলি ঘোষ দস্তিদার গেলেন না মুখ্যমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ না জানানোর অভিযোগে।
আজ সল্টলেক স্টেডিয়ামের সাথে সেক্টর ফাইভকে যুক্ত করা ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো করিডোরের প্রথম পর্বের উদ্বোধন করলেন রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়াল।

উল্লেখ্য, ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো করিডোর প্রকল্পটি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মস্তিষ্ক প্রসূত। ২০০৯-২০১১ সালে রেলমন্ত্রী থাকাকালীন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই মেট্রো রুটের প্রস্তাব পেশ করেছিলেন। তিনিই রেলের বাজেটে এই অর্থ মঞ্জুর করেছিলেন। এখন সেই প্রকল্প’র উদ্বোধনেই আমন্ত্রণ জানানো হলনা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। এই প্রসঙ্গে কাকলি ঘোষ দস্তিদার বলেছেন, “এই ঘটনা আসলে বাংলার মানুষের অবমাননা। ”
সৌজন্য প্রসঙ্গে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এর কাছে টিকতে পারল না কেন্দ্রের বিজেপি সরকার বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।