সিদ্ধান্ত নিতে দেরি করে ছাত্রছাত্রীদের উদ্বেগ বাড়ানো হচ্ছে; মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি দিলেন রাজ্যপাল

0

কলকাতা: “ছাত্রছাত্রীদের কল্যাণ করাই আমাদের সর্বোচ্চ কর্তব্য”, বললেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকর। সেইসঙ্গে কলেজ পড়ুয়াদের পরীক্ষা নেওয়া এবং রেজাল্ট বের করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া নিয়ে দেরি হওয়ায় রাজ্যসরকারের বিরুদ্ধে ফের তোপ দাগলেন তিনি। সোমবার রাজ্যপাল বলেন, “সিদ্ধান্ত নিতে দেরি করে ছাত্রছাত্রীদের চিন্তায় ফেলা অত্যন্ত খারাপ”।

বলা বাহুল্য, করোনা সংক্রমণ এবং লকডাউনের জেরে বন্ধ রয়েছে রাজ্যের সমস্ত স্কুল কলেজ। আনলক-১ এ সরকারি-বেসরকারি কর্মপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হলেও ঝুঁকি এড়াতে খোলা হয়নি স্কুল-কলেজ। এই পরিস্থিতিতে উচ্চমাধ্যমিকের সমস্ত পরীক্ষা বাতিলের ঘোষণা করেছেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। পাশাপাশি, স্নাতক এবং স্নাতকোত্তরের চূড়ান্ত পরীক্ষাও বাতিল করা হয়েছে। সব সেমিস্টারের সর্বোচ্চ নম্বরের ভিত্তিতে রেজাল্ট বের করার নির্দেশ দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী।

তবে ইউজিসির অধিনস্ত সমস্ত বিশ্ববিদ্যালয়েই ছাত্রছাত্রীদের একইভাবে নম্বর দেওয়া হচ্ছে না। গত সেমিস্টারের ৮০ শতাংশ এবং চলতি সেমিস্টারের ২০ শতাংশ নম্বরের ভিত্তিতে রেজাল্ট দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে রাজ্য সরকার। তবে প্রেসিডেন্সি, যাদবপুরের মত বিশ্ববিদ্যালয় নম্বর দেওয়ার ক্ষেত্রে নিজস্ব কিছু পরিবর্তন আনতে পারে।

অন্যদিকে মৌলানা আবুল কালাম আজাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে এখনও পর্যন্ত এই বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি। ফলে রাজ্যসরকারের ঘোষণা সত্ত্বেও ধন্দে রয়েছেন ছাত্রছাত্রীরা। এই নিয়ে ট্যুইটারে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে উল্লেখ করে পোস্ট করলেন রাজ্যপাল। ছাত্রছাত্রীদের স্বার্থে সিদ্ধান্ত নিতে উপাচার্যদের সঙ্গে ভার্চুয়াল কনফারেন্স করার আবেদনও জানিয়েছেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here