জল্পনা সত্যির ইঙ্গিত? তৃণমূলের কোর কমিটির বৈঠকে অনুপস্থিত শুভেন্দু অধিকারী

0

কলকাতা : ইতিমধ্যে রাজ্য রাজনীতিতে ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচন নিয়ে চর্চা শুরু হয়েছে। একুশকে পাখির চোখ করে দিল্লিতে একাধিক বৈঠক করেছে রাজ্য বিজেপি। তাহলে আর তৃণমূলই বা পিছিয়ে থাকে কেন? শনিবার তৃণমূল ভবনে অনুষ্ঠিত হয় নতুন কমিটির প্রথম বৈঠক।

করোনা আবহে এই প্রথম তৃণমূল ভবনে মুখোমুখি বৈঠক হল। যদিও এদিনের বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন না দলের একনিষ্ঠ ও নির্ভরযোগ্যতার সৈনিক শুভেন্দু অধিকারী। অনুপস্থিত ছিলেন আরও তিনজন। একসঙ্গে ২১ জনের বসার কথা ছিল। কিন্তু শনিবার বৈঠক শুরু হতেই দেখা গেল চারজন অনুপস্থিত। শুভেন্দু অধিকারী, দেবু টুডু, মৃগাঙ্ক মাহাতো, হিতেন বর্মন। এঁদের মধ্যে বর্ধমানের নেতা দেবু টুডু নিজে করোনা আক্রান্ত। তাই তাঁর বৈঠকে যোগ দেওয়ার প্রশ্নই নেই। বাকি তিনজন নিজেদের এলাকায় সংগঠনের কাজে ব্যস্ত, তাই আসতে পারেননি বলে জানালেন সমন্বয় কমিটির অন্যতম প্রধান মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তবে বাকি তিনজনের সঙ্গে শুভেন্দু অধিকারীর অনুপস্থিতিকে এক করে দেখার ব্যাপারটা মানতে নারাজ রাজনৈতিক মহল।

এদিকে এদিনের বৈঠকে শুভেন্দুর অনুপস্থিতি নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে। যদিও দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় সবরকমভাবেই সেই জল্পনা ঢাকার চেষ্টা করেন। পার্থবাবু এদিন বৈঠক শেষে সাফ জানিয়ে দেন, শুভেন্দু অধিকারী অন্য কাজে ব্যস্ত, তাই বৈঠকে যোগ দিতে পারেননি। তবে কমিটির সঙ্গে সবরকম সমন্বয় রেখেই কাজ করছেন তিনি।

এদিনের বৈঠকে পার্থ চট্টোপাধ্যায়, সুব্রত বক্সি, যাঁদের সামনে রেখে এই ২১ জনের কমিটি গড়েছেন মমতা তাঁরা সকলকে স্পষ্ট করে জানান, নিজের নিজের দায়িত্ব সামলাতে হবে, অতি সক্রিয়তা কোনওভাবেই বরদাস্ত করা হবে না। নেওয়া যাবে না কোনও একক সিদ্ধান্তও। আর এখানেই বারবার নিজের পথেই হেঁটেছেন শুভেন্দু অধিকারী।

করোনা আবহে তৃণমূলের প্রথম এই কোর কমিটির বৈঠকে শুভেন্দুর অনুপস্থিতি নিয়ে একাধিক প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। তাহলে কি প্রথম থেকেই সংঘাতের পথে হাঁটতে চলেছেন অধিকারী পরিবারের অন্যতম এই নেতা? বরাবরই নিজের মতো দল পরিচালনা করে এসেছেন তিনি। নিজে যেটা যুক্তিসংগত বলে মনে করেছেন সেটাই করেছেন। এমনকি এই কারণে প্রশান্ত কিশোরের সঙ্গে তাঁর দূরত্বও তৈরি হয়েছে বারবার। শুভেন্দু অধিকারীর আজকের বৈঠকে অনুপস্থিতি অনেক প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে, যার উত্তর এখনও অধরা।

এদিনের বৈঠকে আরও একজনের নীরব উপস্থিতি নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয়েছে। নির্বাচনী স্ট্র্যাটেজিস্ট প্রশান্ত কিশোর। সূত্রের খবর, এদিন তিনি বৈঠকে অংশ নিলেও শুরু থেকে শেষ অবধি চুপচাপই ছিলেন। কোনও কথা বলেননি। যাঁর পরামর্শ মেনে গত কয়েক মাস প্রতিটি পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন স্বয়ং তৃণমূল নেত্রী, নতুন সমন্বয় কমিটির প্রথম বৈঠকে তিনি নীরব কেন? তিনিই তো কমিটিকে দিক নির্দেশ করবেন, এমনটাই তো কথা। যদিও এ নিয়ে রাজনৈতিক মহলে গুঞ্জন শুরু হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here