সভাপতি পদে আবারও রাহুল গান্ধী ! জোর জল্পনা কংগ্রেস শিবিরে

0

অরিত্রা দাশগুপ্ত, নয়াদিল্লি : দ্বিতীয়বার কংগ্রেস আবার বুঝিয়ে দিল গান্ধী পরিবার ছাড়া দলের গতি নেই। ২০১৪ ও ২০১৯ এ পরপর দুবার লোকসভা ভোটে গদি হারানোর ফলে কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটির অন্দরমহলে কংগ্রেস সভাপতির দায়িত্ব ভার কে নেবে সেটাকে কেন্দ্র করে নানান জল্পনা শুরু হয়। ইতিমধ্যে ২০১৯ এর লোকসভা ভোটে কংগ্রেসের পতন ঘটায় রাহুল গান্ধী সভাপতিত্বের পদ থেকে পদত্যাগ করেন। এই কারণে কিছুদিনের জন্য অন্তর্বর্তীকালীন সভানেত্রী হিসেবে দায়িত্ব নেন সোনিয়া গান্ধী।

কিন্তু ফের রাহুল গান্ধীকে সভাপতির পদে চাওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন কংগ্রেস প্রধান মুখপাত্র রণবীর সিং সুরজেওয়ালা। দলের সভাপতি নির্বাচনের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “পরবর্তী সভাপতি নির্বাচনের জন্য এইবার আইসিসির অধিবেশন ডাকা হবে। এটা সকলের ইচ্ছা যে রাহুল গান্ধী আবার সভাপতি হন।”

এরই মধ্যে দলের সাংগঠনিক সাধারণ সম্পাদক কে সি বেনুগোপালকে সোনিয়া গান্ধী চিঠি পাঠিয়ে জানান, তিনি অন্তর্বর্তী সভানেত্রীর পদ থেকে অব্যাহতি চাইছেন। এরপর দলের প্রথম সারির ২৩ জন নেতার পাঠানো চিঠির উপর ভিত্তি করে কংগ্রেস ওয়ার্কিং পার্টির সাত ঘণ্টার বৈঠক বসে। বহু মতবিরোধ, পাল্টা দোষারোপ ও উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় এর পরেও সিদ্ধান্ত আগের অবস্থায় ফিরে আসে। তাদের মধ্যে অনেকেই গান্ধী পরিবারের প্রতি আনুগত্য জানিয়েছেন। এমনকি কদিন আগে যে শচীন পাইলট কংগ্রেসের বিরুদ্ধে প্রশ্ন তুলছেন, তিনিও দলে যোগদান করেন ও কংগ্রেস পার্টির ওপর গান্ধী পরিবারের দায়িত্বশীলতার কথা উল্লেখ করেন।

কংগ্রেসের অধিকাংশ নেতার ধারণা গান্ধী পরিবার যুক্ত থাকলে দলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বতা দূর হবে ও অন্তর্বর্তী ভাঙ্গন প্রতিরোধ করা যাবে। কংগ্রেস নেতা কর্মীদের বিশ্বাস জনপ্রিয়তার নিরিখে যদি নরেন্দ্র মোদীকে কেউ টক্কর দিতে পারেন তা রাহুল গান্ধীই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here