৭ মার্চ মোদীর ব্রিগেডে বড় চমক! ফের জল্পনা শুরু তৃণমূল সাংসদ শতাব্দী রায়কে নিয়ে

0

কলকাতা: একুশে ভোটের নির্ঘন্ট বাজলেও রাজনৈতিক টানাপোড়েন এখনও বিন্দুবিসর্গ কমেনি শাসক বিরোধী দুই শিবিরেই। ভোটে শুরুর আর মাত্র কয়েক সপ্তাহ বাকি। আগামি দু’একদিনের মধ্যে প্রার্থী তালিকাও ঘোষণা করে দেবো রাজনৈতিক দলগুলো। কিন্তু এখনও দলবদল পর্ব অব্যাহত। মঙ্গলবার ঘাসফুল শিবির ছেড়ে পদ্মশিবিরে নাম লিখিয়েছে পাণ্ডবেশ্বরের তৃণমূল বিধায়ক তথা আসানসোলের বেতাজ বাদশা জিতেন্দ্র তিওয়ারি। টলি পাড়াতেও সরগরম পরিস্থিতি। টলি অভিনেতা অভিনেত্রীর লাইন লেগেছে শাসক বিরোধী দুই শিবিরে যোগদানের।

গত ২৮ ফেব্রুয়ারি ব্রিগেডের মাঠে বাম-কংগ্রেস-আইএসএফের জোট ‘সংযুক্ত মোর্চা’ ‌শক্তি প্রদর্শন করতে গিয়ে জোটের অভ্যন্তরীণ সংঘাত প্রকাশ্যে এনেছে। এবার সেই মাঠেতেই আগামি ৭ মার্চ শক্তি প্রদর্শন করবে মোদী। মোদীর ব্রিগেড সমাবেশে একাধিক ‘চমক’ থাকবে, সেই নিয়ে ইতিমধ্যেই জল্পনা শুরু হয়েছে। শোনা যাচ্ছে মোদীর ব্রিগেডে উপস্থিত থাকতে পারেন বীরভূমের তৃণমূল সাংসদ শতাব্দী রায়। কানাঘুষো, তিনি ব্রিগেডের মঞ্চ থেকেই বিরোধী দল বিজেপি’তে যোগ দেবেন।

উল্লেখ্য সপ্তাহ খানেক আগেই শতাব্দী রায়ের ঘাসফুল ছাড়া নিয়ে তীব্র জল্পনা শুরু হয়। তখনই তিনি বিজেপি তে যোগ দেবেন এমনটাই শোনা যাচ্ছিল। তারাপীঠ উন্নয়ন পর্ষদ থেকে পদত্যাগ করেন শতাব্দী রায়। এরপর নিজের ফেসবুকের ফ্যানপেজ থেকে একটি পোস্টে দলের বিরুদ্ধে নিজের ক্ষোভ উগড়ে দেন অভিনেত্রী-সাংসদ। পরিস্থিতি এতটাই বেগতিক হয়ে ওঠে যে অভিষেক ব্যানার্জিকে পর্যন্ত নামতে হয়। এরপর জানান যে তিনি দিল্লি যাচ্ছেন না বা দলবদলও করছেন না তিনি। বিগত কয়েকদিনে তৃণমূলের একাধিক কর্মসূচিতে যোগ দেন। সক্রিয় হয়ে হবেন শাসক দলের হয়ে।

কিন্তু এখন ফের শোনা যাচ্ছে যে শতাব্দী রায় ৭ই মার্চ ব্রিগেডে উপস্থিত থেকে গেরুয়া শিবিরে যোগ দেবেন। এখন এই দলবদলের হিড়িকে এই খবর খুব একটা বিস্ময় করার মতো নয়। এর আগেও অনেক তৃণমূল নেতা, মন্ত্রী, বিধায়ক দল ছেড়ে বিজেপিতে নাম লিখিয়েছেন। কিছুদিন আগে অভিনেতা রুদ্রনীল ঘোষও তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে গিয়েছেন। এছাড়াও গেরুয়া শিবির যোগ দিয়েহেন যশ দাশগুপ্ত, হিরণ চট্টোপাধ্যায়, শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়ের মতো তারকারা।