রাজনীতির ময়দানে ব্যাট করবেন না, বিজেপিতে যোগ না দেওয়ার সিদ্ধান্ত দিল্লির শীর্ষ নেতাদের জানালেন সৌরভ

0

কলকাতা: আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনকে ঘিরে উত্তাল হয়ে রয়েছে বঙ্গ রাজনীতি। আর এই মুহূর্তে সকলের নজর রয়েছে বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট তথা সর্বকালের সেরা অধিনায়ক তথা বাংলার দাদা সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের দিকে। আবারও রাজনৈতিক মহলে গুঞ্জন উঠেছে সৌরভ নাকি এবার ব্যাট করবেন রাজনীতির ময়াদানে। সেই খেলা খেলবেন গেরুয়া দলের হয়ে। আগামী ৭ মার্চ কলকাতার ব্রিগেডে নরেন্দ্র মোদীর জনসভায় বিজেপিতে যোগ দেবেন তিন এই নিয়ে চলছে জোর জল্পনা। তবে সেই জল্পনাতে জল ঢেলে তিনি স্পষ্ট জানিয়েছেন তিনি এখন রাজনীতিতে আসতে চান না।

বুধবার তাঁর এই সিদ্ধানের কথা বিজেপির শীর্ষ নেতাদের জানিয়ে দেওয়া হয়েছে বলেই খবর রয়েছে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের বিশ্বস্ত সূত্রে। তবে তিনি নিজে মুখ খোলেন নি এই বিষয় নিয়ে। অনেকেই মনে করেছিলেন বিজেপি বাংলা শাসনের জন্য জনপ্রিয় একজন বাঙালিকে খুঁজছিলেন। সেই মুখ দাদা অর্থাৎ সৌরভ ছাড়া আর কেউ নয়। তাই রাজনৈতিক মহলে কানাঘুসো অনেক দিন থেকেই শোনা যাচ্ছিল যে নির্বাচনে বিজেপি জিতলে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী করা সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে। তবে সবটাই ছিল জল্পনা মাত্র। জল্পনা শুরু হয়েছে এই ব্রিগেড মঞ্চে উপস্থিত থাকতে পারেন বাংলার মহারাজ তথা ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। তবে কি ব্রিগেডের মঞ্চেই গেরুয়া শিবিরে যোগদান করবেন দাদা? এই প্রশ্নের জবাব তিনি দিয়ে দিয়েছেন।

বিজেপি বরাবরই চেয়ে এসেছে বাংলার কোনও জনপ্রিয় মুখই সামনে আসুক। সুতরাং বঙ্গ নির্বাচনে এবার হতে পারত দাদা বনাম দিদির লড়াই। এর আগে অমিত শাহ কলকাতায় এসে বলেছিলেন, “বিজেপি ক্ষমতায় আসলে বাংলার পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী হবেন বাংলার ভূমিপুত্র।” বর্তমান রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতার বিপক্ষে কাকে বিজেপির মুখ্যমন্ত্রীর পদপ্রার্থী হিসাবে সামনে রেখে নির্বাচনী লড়াই লড়বে সেটাই লাখ টাকার প্রশ্ন। সূত্রের খবর, ছিল যদি বিজেপি নির্বাচনে হেরেও যায় তবে তারা সৌরভের মান রাখতে তাকে কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রীর পদ দিয়ে দিতে পারে। যদিও এই মুহূর্তে এই সব কিছুই হচ্ছে না। তবে সকলের নজর থাকছে আগামী ৭ মার্চ ব্রিগেডে প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদীর জনসভার দিকে।