৭ মার্চ মোদীর ব্রিগেড সমাবেশের আগে ‘মমতা’য় মুড়ে যাবে কলকাতা

0

কলকাতা: নীল বাড়ি দখলে রাজ্য বিজেপির যে রূপরেখা তৈরি হয়েছে তাতে স্থির হয়েছে, আগামি কয়েকদিনে ভোটের প্রচারে মোদী অন্তত ২১ টি সভা করবেন। যার সূচনা হচ্ছে ৭ মার্চ ব্রিগেড থেকে। অর্থাৎ তারপর আরও ২০ টা সভা করবেন প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু মোদীর ব্রিগেড সভাকে নিয়ে পারদ চলছে রাজ্য রাজনীতিতে। ওইদিন রাজ্যে মোদীকে স্বাগত জানাতে তৈরি শাসক দল। কিভাবে ? ওইদিন সারা কলকাতা ‘মমতাময়’ করে দেবে ঘাসফুল শিবির। তিলোত্তমা ছেয়ে যাবে মুখ্যমন্ত্রীর পোস্টারে। তৃণমূল চাইছে মোদির ব্রিগেডের দিন গোটা কলকাতা তৃণমূলের তথা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পোস্টার-ব্যানারে মুড়ে ফেলতে। ওইদিন কলকাতার সর্বত্র দেখা যাবে ‘বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়’, ‘বাংলার গর্ব মমতা’-সহ তৃণমূলের বিভিন্ন স্লোগান। সেইমতো বৃহস্পতিবার কলকাতার কাউন্সিলরদের বিশেষ নির্দেশ দিয়েছে দলের হাই কম্যান্ড।

প্রসঙ্গত বৃহস্পতিবার তৃণমূলভবনে কলকাতার সব কাউন্সলিরদের সঙ্গে বৈঠক করেন তৃণমূলের শীর্ষ নেতৃত্বরা। সেই বৈঠকেই কাউন্সলিরদের এই নির্দেশই দেওয়া হয়। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়, তৃণমূলের যুব সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, এবং তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সি। সূত্রের খবর, কাউন্সিলরদের স্পষ্ট নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, ৭ তারিখ অর্থাৎ বিজেপির ব্রিগেড সমাবেশের আগেই শহর কলকাতা মুড়ে ফেলতে হবে দলের পোস্টার, ব্যানার, হোর্ডিংয়ে। যাতে ‘বাংলা নিজের মেয়েকেই চায়’, ‘বাংলার গর্ব মমতা’-সহ তৃণমূলের বিভিন্ন স্লোগান লেখা হবে। সেই সঙ্গে ১৪৪টি ওয়ার্ডেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি দিয়ে বড় বড় কাট-আউটও ছাপা হবে। যদিও, সরকারিভাবে তৃণমূলের তরফে বলা হয়েছে, বিজেপির কর্মসূচির কথা মাথায় রেখে নয়, ভোট যেহেতু এসে গিয়েছে, তাই এমনিই দলের কাউন্সিলরদের প্রচারের কাজ শুরু করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।