নারীদিবসে বিজেপির সাধের উত্তরপ্রদেশ, গুজরাটে নারী সুরক্ষা নিয়ে মোদী-শাহকে বিঁধলেন মমতা

0

কলকাতা: সোমবার আন্তর্জাতিক নারীদিবসের দিন নিজের চেনা ভঙ্গীতেই রাস্তায় নামলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কলেজ স্কোয়ার থেকে ডোরিনা ক্রসিং পর্যন্ত বিশাল পদযাত্র করেন তিনি। তার সঙ্গে পা মেলান লক্ষ লক্ষ মানুষ। সঙ্গে ছিলেন সদ্য তৃণমূলে প্রার্থী পদ পাওয়া সায়নি, কৌশানী, সায়ন্তিকা,লাভলি। এছাড়াও সাংসদ মিমি-নুসরত, সুদেষ্ণা রায়, সুভদ্রা সহ টালিগঞ্জের একঝাঁক তারকা। পদযাত্রায় সামিল হন কাকলি ঘোষ দস্তিদার,চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য। রোড শো’র শেষে নারীদিবসের সভামঞ্চ থেকে বাংলায় নারী সুরক্ষা নিয়ে বিজেপির অভিযোগের পালটা দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

ভোটের পরিবেশকে গরম করতে বিজেপি নেতা থেকে দলবদলু সকলেই বাংলায় নারী সুরক্ষা নিয়ে সাওয়াল করছেন শাসক দলের বিরুদ্ধে। তাদের সুরে সুর মিলিয়েছেন দিল্লী থেকে আসা নেতারাও। নীল বাড়ি দখলের লক্ষ্যে একুশের নির্বাচনে বিজেপির প্রধান ইস্যু হয়ে দাঁড়িয়েছে ‘নারী সুরক্ষা’। এরাজ্যে সুরক্ষিত নন নারীরা, বার বার দাবি তুলেছে বিজেপি। সম্প্রতি নৈহাটির সভায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নিশানা করে বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা বলেছিলেন, ‘বাংলার মেয়েদের কী হাল হয়েছে! পারিবারিক হিংসার ঘটনা সবথেকে বেশি হচ্ছে বাংলায়। নারী পাচার বাংলাতেই বেশি হচ্ছে।’

নারীদিবসের দিন মঞ্চ থেকে তাদেরই যোগ্য জবাব দিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো। মোদী – নাড্ডা – শাহ’কে কড়া কড়া আক্রমণ মমতার। মোদী-শাহ’কে সরাসরি ‘মিথ্যেবাদী’ বলেও কটাক্ষ করেন তিনি। তাঁর সাফ বক্তব্য, বাংলাকে অপমানিত করতে বাংলায় এসে বাংলাকে নিয়ে মিথ্যে বলছে মোদী-শাহ। বাংলার নারী সুরক্ষা নিয়ে কথা বলতে গিয়ে টেনে আনেন বিজেপির সাধের গুজরাটের অপরাধের পরিসংখ্যানও।

মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, ‘বাংলায় মেয়েরা সুরক্ষিত নয় বলছে! তাহলে কোথায় সুরক্ষিত! বাংলাতে এসে শুধু মিথ্যে কথাই বলেন মোদী। বাংলায় মেয়েরা দিন-রাত সবসময় সুরক্ষিত। তাঁরা চাকরি করে, সংসার করে, রাত ১০-১১টায় যেখানে খুশি যেতে পারে।’ এখানেই শেষ নয়, পরিসংখ্যান তুলে ধরে নেত্রীর দাবি, ‘মহিলাদের উপর অত্যাচারে এগিয়ে মোদীর মডেল গুজরাট। ক্রাইম রেকর্ড বলছে ধর্ষণের শীর্ষে আমেদাবাদ আর যোগী রাজ্য উত্তরপ্রদেশ।এই পরিসংখ্যান নিয়ে আবার বড়বড় কথা।’

শিলিগুড়িতে জ্বালানির দাম বৃদ্ধিতে মহিলাদের নিয়ে রাস্তায় নেমেছিলেন মমতা। সেই নারীশক্তিরই সোমবার কলকাতায় প্রতিফলন ঘটালেন। শিলিগুড়ির মতো এদিনও গ্যাস ও পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে কেন্দ্রের BJP সরকারকে আক্রমণ মমতার। ‘বিনা পয়সায় আমরা চাল দিচ্ছি, ফোটাতে লাগছে ৯০০ টাকার গ্যাস। কিছু দরকার নেই, প্রধানমন্ত্রী বিনামূল্যে গ্যাস দিন।’

রবিবারের কলকাতায় মোদী ব্রিগেড সমাবেশকেও কটাক্ষ মমতার বলেন, ‘ ব্রিগেডকে বিগ্রেড করে ছেড়েছে। আমরা নারীদের সুরক্ষিত করে রাখতে চাই। নারীরাই বাংলা গড়বে। কাল এসে বলে গেল ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার বানাবে। জানে না, বাংলার ঘরে-ঘরে ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার।’ একইসঙ্গে ভ্যাকসিনে প্রধানমন্ত্রীর ছবিকে ইস্যু করেও প্রবল আক্রমণ শানান নেত্রী। বলেন, ‘কোভিড ভ্যাকসিনে নিজের মুখ। পেট্রোল পাম্পে নিজের মুখ। নিজের নামে স্টেডিয়ামে। ইসরোতেও নিজের ছবি পাঠিয়েছেন।’