নীল নবান্নে নয়, ক্ষমতায় এলে লাল মহাকরণেই রাজ্যের শাসনব্যবস্থা ফেরাবে বিজেপি

0

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ভোট পরবর্তীতে মমতার নবান্ন বাদ, বাংলার শাসন শুরু হবে মহাকরণে, এমনই বার্তা দিলেন বিজেপির মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য।
মঙ্গলবার সাংবাদিক সম্মেলনে শমীক ভট্টাচার্য জানান, মমতার তৈরি নবান্নে নয়, বিজেপি ক্ষমতায় এলে ঐতিহাসিক রাইটার্সে ফিরবে রাজ্যে প্রশাসনের সদর দপ্তর। তিনি আরও বলেন,”রাইটার্স বিল্ডিংকে ঘিরে মানুষের আবেগ আছে। এই ভবনের ঐতিহ্য বহুদিনের। বিনয় বাদল দীনেশ মার্গের এই ভবন থেকেই বাংলায় শাসনব্যবস্থা ঐতিহাসিকভাবে চলে আসছে। তাই বিজেপি এলে মহাকরণেই ফিরবে সচিবালয়।”
এদিনের এই মন্তব্য নিয়ে অবশ্য জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছে রাজনৈতিক মহলে। অনেকে মনে করছেন, বিজেপির এই ঘোষণার পিছনে বাঙালির মন ছোঁয়ার কৌশল আছে। মহাকরণের প্রতি যে বাঙালির একটা আবেগ জড়িয়ে আছে সেটাই কাজে লাগাতে চাইতে বিজেপি। বিজেপির দাবি, নবান্নের ১৪ তলা থেকে স্বৈরাচারী শাসন চালান মমতা ব্যানার্জি। তাই সেখান থেকে রাজ্য না চালিয়ে মহাকরণ থেকেই রাজ্যে সুশাসন প্রতিষ্ঠা করতে চান তাঁরা।
উল্লেখ্য, ২০১১ সালে ক্ষমতায় আসার পর প্রথমে মমতাও মহাকরণে থেকেই রাজ্য চালাতেন। ২০১৩ সালে তিনি রাজ্য প্রশাসনের সদর দপ্তর নবান্নে নিয়ে যান। তখন বলা হয়, রাইটার্স বিল্ডিংটি ভগ্নপ্রায়, এর অনেক মেরামতি প্রয়োজন। তাই অস্থায়ীভাবে সচিবালয় সরানো হচ্ছে নবান্নে। কিন্তু গত ৮ বছরে আর মহাকরণ মুখো হননি মমতা। ৮বছর ধরে ঝাঁপ বন্ধ থাকায় মহাকরণ এখন কার্যত ‘ভুতুড়ে বাড়ি’ বললেই চলে। এবার গেরুয়া শিবির জানিয়ে দিল, ক্ষমতায় এলে বিজেপি নেতৃত্ব মমতার তৈরি নীল নবান্নে নয়, লাল মহাকরণেই ফেরাবে রাজ্যের শাসনব্যবস্থা।