‘সিপিএম-এর হার্মাদরাই এখন বিজেপি হয়েছে’, বিজেপিকে কড়া ভাষায় আক্রমণ মমতার

0

কলকাতা: দোরগোড়ায় একুশের বিধানসভা নির্বাচন। ভোটের প্রচারে ব্যাস্ত রাজনৈতিক দলগুলি। এদিকে পায়ে চোট নিয়ে এবং হুইল চেয়ারে বসেই ব্যাক টু ব্যাক সভা করে চলেছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার সকালে গোপীবল্লভপুরে নির্বাচনী জনসভায় যোগ দেন তৃণমূল নেত্রী। আর সেখান থেকে কড়া ভাষায় বিজেপিকে আক্রমণ করেন তিনি। একই সঙ্গে তাঁর পায়ে আঘাত নিয়ে ষড়যন্ত্রের অভিযোগও আনেন মমতা।

এদিন তিনি বলেন, ‘আগে আমাকে মারত সিপিএম, এখন মারে বিজেপি। সিপিএম-এর হার্মাদরাই এখন বিজেপি হয়েছে। তবে অত্যাচারের বদলে অত্যাচার নয়। আমরা শান্তির বাংলা গড়ব।’ তিনি আরও বলেন, আমার মাথায়, কোমরে চোট রয়েছে। বেল্ট পড়ে ঘুরতে হয়। কিন্তু আপনাদের শক্তি আমাকে আরও শক্তি জোগাতে সাহায্য করে। সভা মঞ্চ থেকেই এদিন বিজেপিকে তীব্র আক্রমণ করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, “বিজেপি বলে আমরা চোর, ওরা সাধু? সব থেকে বড় দুর্নীতির দল তো তোমরা…!”

বিজেপিকে তীব্র আক্রমণ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। তিনি বলেন, দুঃশাসন রাজ ভারতে চালাচ্ছে। সারা ভারতে শেষ করে দিয়েছে। নোটবন্দির নামে মানুষকে শেষ করে দিল। বলছি কোভিডের টিকা দাও, মোদী দিচ্ছে না। আবার কোভিড শুরু হয়েছে। আমি বলছি বিনে পয়সায় দেব, উনি দিচ্ছেন না। ভোট নেওয়ার জন্য বিহারে টিকা দেওয়ার কথা বলেছিল। আজ পর্যন্ত বিহারের মানুষ টিকা পায়নি। ভোট আসলেই মিথ্যে কথা বলে।’

পাশাপাশি সাধারণ মানুষের উদ্দেশ্যে প্রশ্ন ছুড়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘২ বছর আগে যে লোকসভা নির্বাচনে জিতল, জেতার পর কিছু করেছে আপনাদের জন্য? বিজেপি কিছু জানে না। কী জানবে কোনওদিন বাংলায় ছিল? বিজেপি ১ হাজার নেতা নিয়ে এসেছে বাইরে থেকে। আর হাজার হাজার বহিরাগত গুন্ডা। ওরা চায় ঝাড়গ্রাম দখল করতে। ওরা চায় পুরুলিয়া দখল করতে। ওরা চায় গোয়ালতোড় দখল করতে। কিন্তু পরে ওরাই আপনাদের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করবে!