নির্বাচনের আগে আরও সক্রিয় ইডি, মেট্রো ডেয়ারির মামলায় এবার আইএএস বিপি গোপালিকাকে তলব

0

কলকাতা: বিধানসভা নির্বাচনের সমর আরও চাপে পড়ে গেল রাজ্য প্রশাসন। ভোটের আগে রীতিমতো সক্রিয় ভাবে কাজ করছে ইডি। কয়লাকাণ্ড থেকে গরু পাচার একাধিক অভিযোগের তদন্ত শুরু করেছে। মেট্রো ডেয়ারির মামলায় এবার বিপি গোপালিকাকে তলব করল ইডি বা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। আগামী ২৪ মার্চ হাজির হতে বলা হয়েছে এই অফিসারকে। রাজ্যের প্রাণী সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের সচিব পদে ছিলেন বিপি গোপালিকা। নানা সময়ে নবান্নে একাধিক দপ্তর সামলেছেন তিনি। ওই দফতরের মাধ্যমেই মেট্রো ডেয়ারি হস্তান্তরের প্রক্রিয়া হয়েছিল। আর তাই এই মামলায় তাঁকে জেরা করতে চায় ইডি।

২০১৭ সাল থেকে এই মামলার তদন্ত শুরু করেছে ইডি। কংগ্রেস নেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরীর মামলার ভিত্তিতেই চলছে তদন্ত। রাজ্য সরকারের হাতে থাকা মেট্রো ডেয়ারির ৪৭ শতাংশ শেয়ার কেভেন্টার্স গ্রুপের কাছে কম দামে বেচা হয়েছে বলে দুর্নীতির অভিযোগ তোলেন কংগ্রেস নেতা অধীর রঞ্জন চৌধুরী৷ তাঁর দাবি ছিল, ওই ৪৭ শতাংশ শেয়ার কেভেন্টার্স গ্রুপের কাছে ৮৫ কোটি ৫০ লাখ টাকায় বিক্রি করেছে রাজ্য৷ তার কিছু দিনের মধ্যেই মেট্রো ডেয়ারির ১৫% শেয়ার সিঙ্গাপুরের মান্ডালা ক্যাপিটাল নামক এক সংস্থাকে ১৭০ কোটি টাকাতে বিক্রি করেছে কেভেন্টার্স৷ সেই হিসেব মতো এই ৪৭% শেয়ারের ৫৩৩ কোটিতে বিক্রি করা রাজ্য সরকারের উচিত ছিল বলে অভিযোগ অধীরের৷

অন্যদিকে শুধুমাত্র বিপি গোপালিকা না। এর আগে এই মেট্রো ডেয়ারি মামলায় রাজ্যের স্বরাষ্ট্রসচিব এইচকে দ্বিবেদীকেও তলব করেছিল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট। তা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তীব্র প্রতিক্রিয়া করেছিলেন। বাঁকুড়ার প্রচারসভা থেকে তিনি ইডির এই পদক্ষেপকে কেন্দ্রের অভিসন্ধি বলেই সরাসরি তোপ দেগেছিলেন। তাঁর মতে, ভোটের আগে এভাবে সিবিআই, ইডির তলব আসলে রাজ্য প্রশাসনের কর্তাদের চাপে রাখার কৌশল।