লাল ফেরাতে একের পর এক প্যারোডি বামেদের, ‘টূম্পা সোনা’, ‘লুঙ্গি ড্যান্স’-এর পর এবার ‘উরি উরি বাবা’ 

0

কলকাতা:  রাজনীতিতে শাসকের ভূমিকা থেকে মুছে যাওয়া একটা দল বাম, বছর দশেক আগেই দীর্ঘ শাসনের ইতিহাসকে তুড়ি মেরে বঙ্গ থেকে হটিয়ে দিয়েছিল মমতার সরকার। নিজের দলকে শাসকের ভূমিকায় কে না দেখতে চায় সুতরাং একুশে লাল ফেরাতে মরিয়া হয়ে উঠেছে বামেরা, দলকে চাঙ্গা করতে কেন্দ্রীয় সরকার বিজেপি এবং রাজ্য সরকার তৃণমূলকে কটাক্ষ করে অভিনব চেষ্টায় একের পর এক প্যারোডি তৈরি করে চলেছে বামেরা। বাম যুবদের উদ্যোগে ইতিমধ্যেই ‘টুম্পা সোনা’ সকলের বেশ মন কেড়েছে, তারপরই ‘লুঙ্গি ড্যান্স’ এবং পরবর্তী ঊষা উত্থুপের ‘উরি উরি বাবা’ অর্থাৎ বিরোধীদের বিরুদ্ধে তোপ দাগানোর নয়া প্রচেষ্টা।

বিজেপি ও তৃণমূল এই দুই কেন্দ্র ও রাজ্যের শাসকদলকে মিশিয়ে ব্যঙ্গাত্মক কটাক্ষ করেছন বামেরা, দুই দলের মিশ্রিত রূপ ‘বিজেমূল’ অর্থাৎ দল দুটির মধ্যে যে কোনও ফারাক নেই তা বুঝিয়ে দিয়েছে কমরেডরা। বিজেপি ও কেন্দ্র সরকারের বিভিন্ন দুর্নীতির কথাও শোনা গিয়েছে প্যারোডিতে, গানের ছলে কুকীর্তির কথা তূলে ধরা হয়েছে। কয়লা কাণ্ড, নারদা, সারদা থেকে শুরু করে কোকেন কাণ্ড সবকিছুই গানের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এমনকি রাজ্যের দুর্নীতির কালি মুছতে কেন্দ্রের দলেও অনেক তৃণমূল নেতা মন্ত্রী যোগ দিয়েছে তা স্পষ্ঠ ফুটে উঠেছে বামেদের প্যারোডিতে। সুতরাং বলাই চলে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের বিরোধিতা করে পুনরায় শাসক দলের জায়গা করে নিতে চাইছে বামেরা।

রাজনীতির ময়দান থেকে নিশ্চিহ্ন হয়ে যাওয়া দল কি পুনরায় জায়গা দখল করতে পারবে? বামেদের মূলধারার রাজনৈতিক প্রচারের স্লোগানও ফুটে উঠেছে ‘লুঙ্গি ড্যান্স’ প্যারোডিতে অর্থাৎ “হাল ফেরাও, লাল ফেরাও”। ব্রিগেডের জনসমাবেশের আগে নেট দুনিয়ায় বামেদের প্যারোডি বেশ সাড়া জাগিয়েছিল, তার প্রতিক্রিয়া ব্রিগেড সমাবেশেও দেখা গেছে। জনতার ভিড়ে উপছে পড়েছিল ব্রিগেড। যদিও বামেদের প্যারোডি ও সমাবেশ কোনটাকেই পাত্তা দিচ্ছেনা শাসক দলেরা। ভোটের মুখে সকলেই মরিয়া দলকে শীর্ষে দেখতে কিন্তু কার পাল্লা কতটা ভারী তা বলে দেবে জনতা তাদের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here