কাঁথিতে শিশির অধিকারীর হেনস্থা নিয়ে কড়া প্রতিক্রিয়া দিলীপের

0

কাঁথি: অবশেষে শান্তিকুঞ্জে পদ্ম ফুটেছে। বাড়ির মেজে ছেলে শুভেন্দু অধিকারী গত বছরের ডিসেম্বরেই পদ্মশিবিরে নাম লিখিয়েছেন। এবার শিশির অধিকারী বিজেপিতে যোগদান করে অধিকারী পরিবারের পদ্ম শিবিরে যোগদানের ষোলোকলা পূর্ণ হলো। যদিও শুভেন্দুর পর যে বর্ষিয়ান নেতা শিশির অধিকারীও বিজেপিতে যাবেন তা একপ্রকার নিশ্চিত ছিল। অমিত শাহের সভা থেকে বিজেপিতে যোগ দিয়ে সোমবার প্রথম কাঁথিতে বিজেপি প্রার্থীর সমর্থনে প্রচারে নামেন শিশির অধিকারী। আর প্রথম দিনই হেনস্থার মুখে পড়তে হয় তাঁকে। সাধারণ মানুষ ঘিরে ধরে বিক্ষোভ দেখায়। সেই ঘটনায় এদিন কড়া ভাষায় শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসকে হুঁশিয়ারি দিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

বিজেপির রাজ্য সভাপতির সাফ কথা, বিনাশকালে বিপরীত বুদ্ধির উদয়! কেন সবাই দল ছেড়ে চলে যাচ্ছে, সেটা ওরা ভাবুক। আর শিশিরবাবুকে যদি কেউ অপমান করে, তবে তার ফল তাঁকে ভুগতে হবে। মঙ্গলবার চা-চক্রের অনুষ্ঠানে দিলীপ ঘোষ বলেন, “সবাই তাদের পার্টি ছেড়ে চলে যাচ্ছে। মন্ত্রী, সাংসদ, বিধায়ক থেকে সাধারণ কর্মীরা। আসলে ওই পার্টির মধ্যে কোনও গণতন্ত্র নেই। সম্মান নেই। অধিকার নেই। সাধারণ কর্মচারী হয়ে থাকতে হবে সারা বছর। একজন ৭০ বছর বয়সী বৃদ্ধ লোকেরও সম্মান নেই পার্টিতে।”

প্রসঙ্গত, গতকাল প্রথমবার বিজেপির হয়ে কাঁথিতে প্রচারে নামেন শিশির অধিকারী। নেমেই প্রবল বিক্ষোভের মুখে পড়েন শিশির। বিজেপি প্রার্থী সুমিতা সিনহার প্রচারে সোমবার সন্ধ্যায় তিনি কাঁকগেছিয়ায় একটি সভায় যান। সেখানেই শিশিরবাবুকে উদ্দেশ করে স্লোগান দিতে থাকেন তৃণমূল কর্মীরা। বিজেপি-তৃণমূলের খণ্ডযুদ্ধে তুলকালাম বেঁধে যায় সভাস্থলে। সেই প্রসঙ্গে এদিন চাঁছাছোলা ভাষায় তৃণমূলকে উদ্দেশ করে কড়া ভাষায় তোপ দাগলেন দিলীপ ঘোষ। তাঁর সাফ কথা, “গুন্ডা লাগিয়ে বিক্ষোভ করে কিছু লাভ হবে না। শিশিরবাবুকে যদি কেউ অপমান করে, তবে তার ফল তাঁকে ভুগতে হবে।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here